গোপালপুর ও কালিহাতী পৌরসভা নির্বাচন রোববার ॥ প্রস্তুতি সম্পন্ন

104

নোমান আব্দুল্লাহ / সোহেল রানা, কালিহাতী ॥
চতুর্থ ধাপে আগামীকাল রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) টাঙ্গাইলের গোপালপুর ও কালিহাতী পৌরসভার নির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে গোপালপুরে প্রথমবারের মতো ইভিএমএর মাধ্যমে এবং কালিহাতীতে ব্যালটের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এই দুই পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী দাঁড়ানোর কারণে বেকাদায় রয়েছে তারা। অপরদিকে বিএনপি সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা রয়েছে তাদের। ইতিমধ্যে নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে পর্যাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। নির্বাচনে ১ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। এই দুই পৌরসভা নির্বাচনে মোট ৯ জন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া সংরক্ষিত ১৯ জন এবং সাধারণ কাউন্সিললর পদে ৭৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২ জন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ১৮ জন দায়িত্ব পালন করছেন।
গোপালপুর পৌরসভা- ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে এ পৌরসভা গঠিত। এ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান মেয়র রকিবুল হক ছানা (নৌকা), বিএনপি প্রার্থী খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম রুবেল (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন (নারিকেল গাছ), বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী ও গোপালপুর পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি খন্দকার শাহাজাহান ভিপি (জগ) প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া এই পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৯ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ পৌরসভায় মোট ভোটার ৪০ হাজার ৭৩৫জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ২০ হাজার ১০২ জন ও নারী ভোটার ২০ হাজার ৬৩৩ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ১৮টি এবং ভোট কক্ষ রয়েছে ১০৮।
কালিহাতী পৌরসভা- এ পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ড রয়েছে। নির্বাচনে মেয়র পদে ৫ প্রার্থী প্রতিদ্বিন্দ্বতা করছেন। এরা হলেনÑ আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নুরুন্নবী সরকার (নৌকা), বিএনপি প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আলী আকবর জব্বার (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন খালিদ (নারিকেল গাছ), স্বতন্ত্র প্রার্থী হাসান হাসনাত (মোবাইল ফোন) এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী জামিল আল মামুন (হাত পাখা)। এছাড়া সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১০জন, ৯টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পৌরসভার ১২টি কেন্দ্রে ভোট কক্ষ রয়েছে ১০৮। মোট ভোটার ২৮ হাজার ৬৫৫ জন। এর মধ্যে মহিলা ভোটার ১৪ হাজার ৬৩৯ জন এবং পুরুষ ১৪ হাজার ১৬ জন।
এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এএইচএম কামরুল হাসান টিনিউজকে বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠ করার লক্ষে সকল প্রস্তুতি সম্পূন্ন করা হয়েছে। সকাল ৮ টা থেকে বিকেলে ৪ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের ভিতরে ৮ জন পুলিশ এবং ১২ জন আনসার দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া সাধারণ কেন্দ্রের ভিতরে ৬ জন পুলিশ এবং ১২ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা এড়াতে আইনশৃঙ্খলার বাহিনীর সদস্যরা সর্তক অবস্থানে রয়েছে। আশা করছি নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ