গোপালপুরে লেপ-তোষক তৈরিতে ব্যস্ত তুলা ব্যবসায়ী ও কারিগরা

111

নুর আলম, গোপালপুর ॥
টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলায় লেপ তোষক তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা। বেড়েছে লেপ-তোষক তৈরির ব্যস্ততা। তাই বিভিন্ন এলাকা থেকে এসে ভিড় করছে গোপালপুর পৌর শহরের তুলাপট্টি এলাকায়।
শীতের ঠান্ডা হাওয়া বইতে শুরু করেছে টাঙ্গাইলের গোপালপুরে। শীতের বার্তা দিচ্ছে আবহাওয়া। দিনে কিংবা রাতের প্রথমাংশে বেশ গরম কিংবা শীত অনুভূত না হলেও মাঝ রাতে ঠিকই কাঁথা মুড়িয়ে শুইতে হয়। দিনে দিনে শীত আরো বৃদ্ধি পাবে। শীত নিবারনের জন্যে মানুষ নতুন পুরাতন কাপড় কেনার জন্য দোকানগুলোতে ভিড় করছে। তাছাড়া শীতের কবল থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্যে উষ্ণতা ছড়াতে প্রাচীনকাল থেকেই লেপ, তোষক ও কম্বলের জুড়ি নেই। তাই এ সময়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে গোপালপুর ও আশেপাশের লেপ তোষকের ব্যবসায়ী ও কারিগররা।
উপজেলার বিভিন্ন হাটে-বাজারে ঘরে দেখা যায়, কারিগররা আপন মনে কাজে ব্যস্ত। কাজের ফাঁকেই চলছে ক্রেতাদের সাথে দরদাম কষাকষি। মালিকরা বলেন, দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে তুলা ও কাপড়ের দাম। আর তাই ব্যবসায় তেমন একটা লাভ হচ্ছে না। উপজেলার প্রতিটি এলাকাতেই দেখা গেছে, লেপ তোষক তৈরির কারখানাগুলোতে কারিগরদের দম ফেলার ফুসরত নেই। বিভিন্ন দোকান ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন তুলার দাম গার্মেন্ট তুলা ৭০/৮০ টাকা, ফোম তুলা ২০০ টাকা, শিমুল তুলা ৫০০/৬০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
গোপালপুরে বাজারের দোকানদার ইমরান হোসেন টিনিউজকে জানান, এখন প্রতিদিন কারখানায় ১০ থেকে ১২ টি লেপ তৈরি হচ্ছে। সারা বছর তেমন একটা কাজ না হলেও এখন শীতের মৌসুম, তাই ভালই রোজগার হচ্ছে।

ব্রেকিং নিউজঃ