রবিবার, সেপ্টেম্বর 27, 2020
Home আইন আদালত গোপালপুরে রাজনৈতিক বিরোধে আ.লীগ নেতা নিক্সন খুন হন

গোপালপুরে রাজনৈতিক বিরোধে আ.লীগ নেতা নিক্সন খুন হন

আদালত সংবাদদাতা ॥
টাঙ্গাইলের গোপালপুরে হাদিরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও কলেজ শিক্ষক আমিনুল ইসলাম তালুকদার নিক্সন হত্যা মামলার প্রধান আসামী ছাত্রলীগকর্মী সুমন নিজের দোষ স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) বিকেলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মাসুম এর আদালতে আসামী সুমনের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরেই নিক্সনকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে বলে সুমন স্বীকারোক্তি জবানবন্দিতে উল্লেখ করেন।
এছাড়া গ্রেফতারকৃত অপর দুই আসামী সুজন ও ফারুককে চার দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। এর আগে রোববার (২ আগস্ট) রাতে এজাহারভুক্ত এই তিন আসামীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
টাঙ্গাইলের কোর্ট ইন্সপেক্টর তানবীর আহাম্মেদ টিনিউজকে জানান, মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) তিন আসামীকেই আদালতে তোলা হয়। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মাসুম আসামী সুমনের দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন। পরে তাকে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেন আদালত। এছাড়া সুজন ও ফারুকের বিরুদ্ধে সাতদিনের রিমান্ড চাইলে ম্যাজিস্ট্রেট চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
ধনবাড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চান মিয়া টিনিউজকে জানান, রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরেই আওয়ামী লীগ নেতা নিক্সনকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে বলে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সুমন স্বীকার করেন। পরে তিনি আদালতে ১৬৪ ধারায় নিজের দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন।
উল্লেখ্য, ঈদের আগের দিন গত শুক্রবার (৩১ জুলাই) রাতে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে নির্মমভাবে খুন হন নিক্সন। তার বাড়ি গোপালপুরের হাদিরা ইউনিয়নের আজগড়া গ্রামে। ওই দিন রাতে গ্রামের বাড়ি থেকে ধনবাড়ির বাসায় ফেরায় পথে তিনি হত্যাকান্ডের শিকার হন। পরে তার ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন বাদি হয়ে পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে ধনবাড়ি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই খুন হয়েছেন নিক্সন। তিনি টাঙ্গাইলের লায়ন নজরুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন।

ব্রেকিং নিউজঃ