গোপালপুরে প্রতারণার দায়ে যুবকের কারাদন্ড

70

স্টাফ রিপোর্টার ॥
গোপালপুরে মাতৃত্বকালীন ভাতা নিয়ে প্রতারণা করার অপরাধে জনি নামের এক যুবককে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। রোববার (২৬ জুন) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পারভেজ মল্লিক ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে এ দন্ডাদেশ দেন। প্রতারক জনি হেমনগর শশিমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মঞ্জুরুল হোসেনের ছেলে এবং হেমনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সুমন আহম্মেদ রনির ছোট ভাই।

 

জানা যায়, হেমনগর ইউনিয়ন থেকে তিন ভুক্তভোগী মহিলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. পারভেজ মল্লিক ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা তাপসী শীলের জাল স্বাক্ষর করা মাতৃত্বকালীন ভাতা কার্ড নিয়ে টাকার জন্য মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে যান। কর্তৃপক্ষ অফিস রেজিস্ট্রারে কার্ডগুলো তালিকাভুক্ত না পেয়ে ইউএনওকে অবহিত করেন। অনুসন্ধানে দেখা যায়, হেমনগর ইউনিয়নের ২৫ জন গর্ভবতী মহিলার কাছ থেকে মাতৃত্বকালীর ভাতা কার্ড করে দেয়ার কথা বলে ৬ হাজার টাকা করে ঘুষ নেয় প্রতারক জনি। বৈধভাবে কার্ড করে দিতে না পেরে স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া ভাতা কার্ড তাদের হাতে ধরিয়ে দেয় সে। বিষয়টি জানতে পেরে ওই ইউনিয়নে গিয়ে জনিকে আটক করে এ দন্ডাদেশ দেওয়া হয়।

ব্রেকিং নিউজঃ