গোপালপুরে চায়নার ‘জাম্বু রাজ’ ষাড় গরু ঈদের আকর্ষন

94

নুর আলম, গোপালপুর ॥
মুসলিম সম্প্রদায়ের বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা আসন্ন। সে উপলক্ষ্যে খামারিরা বড় গরু বিক্রির প্রস্তুতি নিচ্ছেন। গণমাধ্যমে বিশাল আকারের গরুর খবর প্রকাশ হচ্ছে। হিরো আলম, বিগ বস, রাজা বাবু আরো কত নামের গরু। এবার জানা গেল, কোরবানির হাট মাতাতে প্রস্তুত করা হয়েছে টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার দক্ষিণ পাথালিয়া গ্রামের ২০১ গম্বুজ মসজিদ সংলগ্ন প্রবাসী সামসুল আলমের ১৭ মণ ওজনের ষাঁড়। যার নাম রাখা হয়েছে ‘জাম্বু রাজ’। ফ্রিজিয়ান জাতের গরুটি ছোট থেকেই হৃষ্টপুষ্ট ও বিশালদেহী তাই এর নাম রাখা হয়েছে ‘জাম্বু রাজ’ প্রবাসী সামসুল আলমের স্ত্রী চায়না বেগম নিজেই যত্ম নিয়ে সন্তানের মতোই লালন পালন করে বড় করেছেন বিশালদেহী ষাড় গরুটি।

 

এটি মূলত ফ্রিজিয়ান জাতের ষাঁড়। কালো রঙ্গের ৪ দাতের গরু, বয়স ৩ বছরের বেশি, এর উচ্চতা প্রায় ৫ ফুট, এই ষাঁড়টির দাম আলোচনা সাপেক্ষে বিক্রি করা হবে বলে জানিয়েছেন খামারি। এলাকার সবচেয়ে বড় গরু হওয়ায় জাম্বু রাজ নামে ষাঁড়টি দেখতে প্রতিদিনই বিভিন্ন এলাকা থেকে উৎসুক জনতা খামারে ভিড় করছেন।

প্রবাসী সামসুল ও তার স্ত্রী চায়না বেগম টিনিউজকে জানান, প্রায় চার বছর আগে নিজস্ব গাভীতে কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে জন্ম নেয় ষাড়টি। এরপর তারা একে প্রাকৃতিক খাবার খাইয়ে পরম যতেœ লালন-পালন করেছেন। তার খামারের এই ষাঁড়টি গোপালপুর উপজেলার সবচেয়ে বড় গরু বলে দাবি করেন চায়না বেগম। চায়না বেগম টিনিউজকে আরো বলেন, গোখাদ্যের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় একটি বড় গরু পালন করতে অনেক খরচ ও পরিশ্রম করতে হয়। কোন বিত্তবান মানুষ ন্যায্য দামে গরুটি কিনে নিলে, আগামীতেও আরো বড় গরু পালনে আমাদের উৎসাহিত করা হবে। আর যদি গরুটি বিক্রি করতে সমস্যা হয় তবে আগামীতে বড় গরু লালন পালনের উৎসাহ হারিয়ে ফেলবেন। তাই গরুটি ক্রয় করতে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ