কালিহাতীতে স্বামী হত্যার অভিযোগে স্ত্রী ও পরকীয়া প্রেমিকসহ গ্রেফতার ৩ জন

276

আদালত সংবাদদাতা ॥
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে স্বামী ইমান হোসেন হত্যার অভিযোগে স্ত্রী ও তার পরকীয়া প্রেমিকসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) তাদের গ্রেফতার করা হয়। শনিবার (৮ জানুয়ারি) বিকেলে তাদের টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্ধি দেন। গ্রেফতারকৃতরা হলো- নিহত ইমাম হোসেনের স্ত্রী খাদিজা আক্তার (২১)। তিনি উপজেলার দেউপুর এলাকার জহিরুদ্দিনের মেয়ে। পরকীয়া প্রেমিক ভূঞাপুর
উপজেলার সিরাজকান্দি এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে সবুর খান বাবু (২০) ও তাদের ভাড়াটিয়া খুনি জনি সেখ (২৫)। তিনি পাবনার ভেড়া উপজেলার মহনগঞ্জ এলাকার জালাল মিয়ার ছেলে। তাকে ভূঞাপুরের গোবিন্দাসী এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। অন্যদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
টাঙ্গাইল ডিবি উত্তরের (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম টিনিউজকে জানান, বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানায় নিহতের বাবা বাদি হয়ে মামলা করার পর তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে জানা যায় পরকীয়া প্রেমের কারণে খাদিজার পরামর্শেই ইমাম হোসেনকে হত্যা করে রাস্তার পাশের কলাবাগানে ফেলে রাখা হয়। পরে শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) রাতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। শনিবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে তাদের আদালতে তোলা হলে তারা হত্যার বিষয়টি স্বীকার করে।
উল্লেখ্য, গত (২৫ ডিসেম্বর) টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের পাশে কালিহাতী উপজেলার সল্লা চরপাড়া এলাকার একটি কলাবাগানে ইমাম হোসেনের মরদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। মরদেহের শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল। পরে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। পরে নিহতের বাবা বাদি হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানায় মামলা দায়ের করেন।

 

ব্রেকিং নিউজঃ