কালিহাতীতে মাইকে ঘোষনা দিয়ে এসিল্যান্ডসহ তিনটি গাড়ি ভাংচুর ও প্রকৌশলী আহত ॥ আটক ৮

1,757

সোহেল রানা, কালিহাতী ॥
টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় নিউ ধলেশ্বরী নদীর কুর্শাবেনু এলাকায় সোমবার (১৮ জুলাই) বিকালে উত্তোলিত বালু (ড্রেজড ম্যাটারিয়াল) পরিমাপকারীদের উপর হামলায় একজন প্রকৌশলী আহত হয়েছে। এছাড়া কালিহাতী এসিল্যান্ডের একটিসহ তিনটি গাড়ি ভাংচুর করেছে স্থানীয় বালু ব্যবসায়ীরা। আর এ ঘটনায় র‌্যাব অভিযান চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ৮ জনকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। এলাকায় এখনও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, সম্প্রতি জেলা ড্রেজড ম্যাটারিয়াল কমিটির সভায় এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর গোল চত্ত্বর পর্যন্ত মহাসড়ক চার লেন করার নিমিত্তে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) কর্তৃক উত্তোলিত বালু (ড্রেজড ম্যাটারিয়াল) ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সে লক্ষ্যে মেসার্স আব্দুল মোনেম লিমিটেড নামক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে পাউবো’র চুক্তি সম্পাদিত হয়। টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ড ও মেসার্স আব্দুল মোনেম লিমিটেডের প্রতিনিধির সমন্বয়ে চুক্তি মোতাবেক উত্তোলিত বালু কুর্শাবেনু এলাকায় পরিমাপ করতে যায়। পরিমাপ করতে গেলে স্থানীয় বালু ব্যবসায়ীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) ৪-৫ জন কর্মচারী ও মেসার্স আব্দুল মোনেম লিমিটেডের ডিজিএম মোস্তাফিজুর রহমানকে বাঁধা দেয়। এক পর্যায়ে বালু ব্যবসায়ীরা উত্তোলিত বালু পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) নিয়ে যাচ্ছে বলে স্থানীয় মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে এলাকার জনসাধারণকে যার কাছে যা আছে তাই নিয়ে একত্রিত হতে বলে। পরে এলাকার লোকজন একত্রিত হয়ে পরিমাপকারীদের উপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করে এবং মেসার্স আব্দুল মোনেম লিমিটেডের ডিজিএম মোস্তাফিজুর রহমানের গাড়ি ভাংচুর করে তাকে শারীরিকভাবে আহত করে।

খবর পেয়ে কালিহাতী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুল হাসান পুলিশ সাথে নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল কুর্শাবেনু যান। পথিমধ্যে তিনি মাইকের ওই ঘোষণা শুনতে পেয়ে টাঙ্গাইলে কর্মরত র‌্যাবকে ঘটনাস্থলে আসতে বলেন। ইতোমধ্যে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুল হাসানকে বহনকারী গাড়ি ও পুলিশের গাড়ি কিছুটা দূরে রেখে মাইকের কাছে পৌঁছান। এই ফাঁকে স্থানীয় উত্তেজিত জনতা কামরুল হাসানকে (এসিল্যান্ড) বহনকারী সরকারি গাড়ি ও পুলিশের গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর চালায়। পরে র‌্যাব ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং ঘটনাস্থল থেকে ৮ জনকে আটক করে। আটককৃতরা হলেন- আমিনুর, আজিম, মিন্টু মিয়া, রাজ্জাক খান, মান্নান, সাইফুল, শরীফ ও মারুফ।

কালিহাতী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুল হাসান টিনিউজকে জানান, তিনি পরিমাপকারীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান। যাওয়ার পথেই তিনি স্থানীয় মসজিদের মাইকে ঘোষণা শুনতে পান। তারা কিছুটা দূরে গাড়ি রেখে মসজিদের কাছে গেলে উত্তেজিত জনতা তার ও পুলিশের গাড়িতে ভাংচুর চালায়। তিনি টিনিউজকে জানান, স্থানীয় উত্তেজিত জনতা মেসার্স আব্দুল মোনেম লিমিটেডের ডিজিএম মোস্তাফিজুর রহমানের গাড়িতে হামলা চালিয়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। পরে র‌্যাব ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। র‌্যাব এ ঘটনায় নেতৃত্বদানকারী ৮ ব্যক্তিকে আটক করে কালিহাতী থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। তিনি টিনিউজকে আরও জানান, আমি তাদের সমস্যার কথা বার বার জানতে ও শুনতে চেয়েছি। কিন্তু কেউ কোন কথা শুনেনি। ঘটনাটি অত্যন্ত দু:খজনক ও পরিতাপের বিষয়। এ ব্যাপারে আমাদের আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

 

 

 

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ