কালিহাতীতে গরুর খামারী ও বিকাশ এজেন্টদের সাথে পুলিশের মতবিনিময় সভা

106

কালিহাতী প্রতিনিধি ॥
কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে গরু চুরি ও বিকাশ প্রতারণা রোধে গরুর খামারী ও বিকাশ এজেন্ট ব্যবস্যায়ীদের সাথে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্তে মতবিনিময় সভা করেছে টাঙ্গাইলের কালিহাতী থানা পুলিশ।
বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) সকাল ১১টায় কালিহাতী থানার আয়োজনে থানার গোল ঘরে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

 

সভায় কালিহাতী থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান, পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত মনিরুজ্জামান শেখ, নাগবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম বিপ্লব, বল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রাশেদুল হাসান লাভলু, থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মাহাবুল ইসলামসহ থানার অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময় সভায় উপজেলার প্রায় অর্ধ শতাধিক খামারি অংশ নিয়ে তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

 

 

এ সময় কোরবানির ঈদকে ঘিরে গরু চুরি ও ডাকাতি বন্ধে নানামুখী পদক্ষেপের পাশাপাশি পুলিশি তৎপরতা বৃদ্ধির কথা তুলে ধরে কালিহাতী থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান খামারীদের উদ্দেশ্য বলেন, আমাদের কৃষি প্রধান দেশে কৃষকের মুল চালিকাশক্তি হলো গরু।

একটি গরু বা খামার মালিকরা গরু লালন পালন করতে গিয়ে সারাজীবনের পুঁজি বিনিয়োগ করতেও দ্বিধা করেন না। দেশের গরু মালিকেরা অনেকেই ব্যাংক লোন নিয়ে গরু কিনে লালন পালন এবং খামার গড়ে তুলেছেন। এই গরু গুলো চুরি হলে ঐ কৃষক বা খামারির সবশেষ হয়ে যায়। হয়ে যায় সর্বস্বান্ত। এসময় তিনি যারা চুরি করবে বা চুরিতে সহযোগীতা করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়ায় কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারী প্রদান করে বলেন, আইন শৃংখলা বাহিনী সদা তৎপর রয়েছে। তবে চুরি রোধে খামার মালিকদেরকে আরো সচেতন হতে হবে এবং প্রতিটি খামারে সিসি ক্যামেরা স্থাপন, পাহারার ব্যবস্থা ও উন্নতমানের এলারাম লক লাগাতে হবে।
এ সময় তিনি বিকাশ এজেন্টদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের গ্রাহক সেবার মান বৃদ্ধি করতে হবে। অনেক গ্রাহক না বুঝে প্রতারক চক্রের মাধ্যমে প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। বিকাশ ব্যবহারকারীদের মধ্যে সতর্কতামূলক প্রচারণা চালাতে হবে। কোনো গ্রাহক যেন তাদের কষ্টের অর্থ নিয়ে ক্ষতির মুখে না পড়েন।
বিকাশ গ্রাহকদের উদ্দেশ্যে বলেন, কোম্পানী থেকে গ্রাহকের পাসওয়ার্ড (পিন) জানতে চাওয়া হয় না। কিন্তু কিছু প্রতারকচক্র বিভিন্ন কৌশলে গ্রাহকদের কাছ থেকে পিন নাম্বার নিয়ে অর্থ তুলে নিয়ে যায়। কেউ যদি কোনো বিকাশ গ্রাহকের গোপন পিন নাম্বার জানতে চায়। তাহলে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে অবহিত করবেন।

ব্রেকিং নিউজঃ