এসআই পরিবহণের ঘাতক বাস চালককে আটক

132

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলে সিরাজগঞ্জের এসআই পরিবহণ বাসের ধাক্কায় অটোরিক্সার দুইযাত্রী খালা ও ভাগ্নি মৃত্যুর ঘটনায় জড়িত ঘাতক বাস চালককে আটক করেছে র‌্যাব। আটক চালক নাজমুল হাসান (২৫) সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার জানপুর গ্রামের হাসমত আলীর ছেলে। মঙ্গলবার (১২ জুলাই) বিকেলে দূর্ঘটনা কবলিত বাসসহ চালককে মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্লা থেকে আটক করা হয়। বুধবার (১৩ জুলাই) প্রেসবিজ্ঞপ্তি মাধ্যমে র‌্যাব-১২, সিপিসি-৩, টাঙ্গাইলের কোম্পানী কমান্ডার মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রেসবিজ্ঞপ্তি জানা যায়, মঙ্গলবার (১২ জুলাই) দুপুরে সিএনজি চালিত অটোরিক্সায় এলেঙ্গা থেকে গাজীপুরের দিকে যাচ্ছিলেন নাটোর জেলার নলডাঙ্গা উপজেলা কাঠুয়াজারি গ্রামের কুদ্দুসের মেয়ে মৌসুমি (৩৫) ও তার ভাগ্নি জামালপুর জেলার টেংকি মারি গ্রামের জাউলের মেয়ে রিয়া মনিসহ (৫) চারজন। এ সময় টাঙ্গাইল সদর উপজেলার রাবনা বাইপাস এলাকায় বেপরোয়া গতির এসআই পরিবহণের একটি বাসের ধাক্কায় সিএনজির দুই যাত্রী খালা ভাগ্নি নিহত ও ২ জন গুরুতর আহত হন। এ ঘটনায় নিহতরা হলেন- নাটোর জেলার নলডাঙ্গা উপজেলা কাঠুয়াজারি গ্রামের কুদ্দুসের মেয়ে মৌসুমি (৩৫) ও তার ভাগ্নি জামালপুর জেলার টেংকি মারি গ্রামের জাউলের মেয়ে রিয়া মনি (৫)।

প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, যাত্রীবাহী সিএনজিকে ধাক্কা দেওয়ার পর ঘাতক চালক বেপরোয়া গতিতে বাসটি নিয়ে পালিয়ে যায়। সংবাদ পেরে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল ঘাতক চালক ও বাসটিকে আটক করার জন্য বাসটির পিছু ধাওয়া করে। একপর্যায় মির্জাপুর উপজেলা পাকুল্লা থেকে ঘাতক চালক নাজমুল হাসান (২৫) আটক করতে সক্ষম হয় র‌্যাব। আটক চালক নাজমুল হাসান সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার জানপুর গ্রামের হাসমত আলীর ছেলে। রাতেই ঘাতক বাস চালকের বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল সদর মডেল থানায় ধারা-সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর ১০৫/৯৮ ধারায় দায়ের করে র‌্যাব। মামলা নং-১৯, তারিখ-১২.০৭.২০২২ইং।। বুধবার (১৩ জুলাই) মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট ঘাতক চালক নাজমুল হাসানকে (২৫) সুস্থ অবস্থায় পরবর্তী প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য হস্তান্তর করা হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ