এবার গৌর ঘোষের মিষ্টির দোকানে টক দইয়ের বোতলে তেলাপোকা

1,792

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইল পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কলেজ পাড়ায় অবস্থিত গৌর ঘোষের মিষ্টির দোকানে টক দইয়ের বোতলের ভেতরে মড়া তেলাপোকা পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গৌর ঘোষের মিষ্টির দোকান থেকে এক লিটারের একটি টক দইয়ের বোতল ক্রয় করেন। এ সময় তিনি বোতলটি নারাচাড়া দিয়ে দেখেন বোতলের ভেতর একটি মড়া তেলাপোকা ভেসে উঠেছে।

এদিকে এই গৌর ঘোষের মিষ্টির দোকানেই দধির পাতিলে এক পোকা (লাল কাড়া) পাওয়া গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। রবিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় স্থানীয় সাংবাদিক নওশাদ রানা সানভী গৌর ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডার থেকে দধি কিনে বাসায় নিয়ে গিয়ে রাতে পরিবার নিয়ে খাওয়ার সময় চোখে পরে (লাল কাড়া) একটি পোকা।

 

ভুক্তভোগী সাংবাদিক নওশাদ রানা সানভী বলেন, অন্য দোকানের থেকে গৌর ঘোষের মিষ্টান্নর দাম অনেক বেশী! তাই ভালোমানের আসায় বেশী দাম দিয়ে বিশ্বাস করে এদের কাছ থেকে আমি দধি কিনেছিলাম। এভাবে প্রতারিত হতে হবে যা কল্পনার বাইরে। অপরিচ্ছন্ন থাকলেতো দইয়ে কাড়া পড়বে কিভাবে? ভাগ্য ভালো দইটি বিষক্রিয়া হয়ে কোন দুর্ঘটনা ঘটেনি। তাই আমার দাবী থাকবে প্রশাসন যেন এগুলি একটু শুনজরে নিয়ে আসে। ছোট দোকানগুলোতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করলেও বড় বড় দোকানে গৌর ঘোষের মিষ্টান্নর দোকানে অভিযান করতে নিয়মিত দেখা যায় না। গৌর ঘোষের মিষ্টান্নর দোকানে নিয়মিত মনিটরিং করা উচিত। মানহীন খাদ্যপণ্য দিয়ে টাঙ্গাইলবাসীর সাথে প্রতারনা যেনো না করতে পারে। গৌর ঘোষ মিষ্টান্নর দোকানে টাঙ্গাইলের মিষ্টির সুনাম নষ্ট করছে।

 

এ বিষয়ে গৌর ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডারের মালিক স্বপন ঘোষ বলেন, কাড়াতো কেউ পালন করে না, অনেক সময় শোনা যায় মানুষের নাক-কান দিয়েও প্রবেশ করেছে কাড়া। দধিতে হঠাৎ করে যেতেই পাড়ে কাড়া, অস্বাভাবিক কিছু না। আমার কারখানা একদম পরিষ্কার। এ ধরনের ভুল যেনো না হয় সেজন্য স্টাফদের কঠোরভাবে সর্তক করা হয়েছে। আশা করি এ ধরনের ভুল আর হবে না।

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ