ঈদে বেড়াতে গিয়ে ভূঞাপুরে যমুনা নদীতে প্রাণ গেল স্কুল ছাত্রের

71

স্টাফ রিপোর্টার ॥
ঈদ উপলক্ষে সোমবার (১১ জুলাই) কয়েক বন্ধু মিলে নৌকা নিয়ে বেড়াতে যায়। এক পর্যায়ে যমুনার মাঝ নদীতে নৌকা থামিয়ে লাফালাফি শুরু করে। এরই এক পর্যায়ে গোসলে নামে সব বন্ধুরা। সবাই নদী থেকে উঠতে পারলেও নিখোঁজ হয় শরিফুল ইসলাম শরিফ (১৫)। পরে মঙ্গলবার (১২ জুলাই) বিকেলে অনেক খোঁজাখোঁজির পর যমুনা নদী থেকে শরিফের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত শরিফ টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গাবসারা ইউনিয়নের মেঘারপটল গ্রামের ফরহাদ হোসেনের ছেলে এবং নবম শ্রেণির ছাত্র।

 

গাবসারা ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম আকন্দ শাপলা টিনিউজকে জানান, মেঘারপটল গ্রামের কয়েক বন্ধু মিলে সোমবার (১১ জুলাই) যমুনা নদীতে নৌকাযোগে পিকনিকে যায়। পিকনিক শেষে রাতে বাড়ি ফেরার পথে চরাঞ্চলের ভদ্রশিমুল এলাকায় পৌঁছলে পিকনিকের নৌকা দাঁড় করিয়ে শরিফ ও তার বন্ধুরা নদীর পানিতে লাফিয়ে লাফিয়ে গোসল করতে থাকে। গোসল শেষে অন্যরা নৌকায় উঠলেও শরিফ উঠে আসেনি। পরে তার বন্ধুরা অনেক খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান না পেয়ে শরিফের পরিবারের লোকজনকে বিষয়টি জানায়। পরিবারের লোকজনও ঘটনাস্থলে এসে খোঁজাখুঁজি করেন। স্বজনরা টিনিউজকে জানায়, ওই নৌকায় ৪-৫ জন বন্ধু মিলে পিকনিককে গিয়েছিল। ফেরার পথে গোসলে নেমে শরিফ নিখোঁজ হয়।

ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম টিনিউজকে বলেন, নিখোঁজ শরিফের লাশ মঙ্গলবার (১২ জুলাই) বিকেলে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধার করেছে।
এদিকে, এ ঘটনায় নিহত শরিফের পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছাঁয়া। স্বজনদের কান্না-আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে পুরো পরিবেশ।

ব্রেকিং নিউজঃ