বাসাইলে গণধর্ষনের শিকার কিশোরী ॥ আটক তিনজন

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার, বাসাইল ॥
টাঙ্গাইলের বাসাইলে নানার বাড়ী বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষনের শিকার হয়েছে এক কিশোরী। তার বাড়ী সখীপুর উপজেলার চাকদহ্ গ্রামে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো- টাঙ্গাইল সদর উপজেলার পোড়াবাড়ী গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (২০), একই উপজেলার খারজানা এলাকার মানিক মিয়ার ছেলে আমিরুল ইসলাম (২০) ও রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার খারাগাছী এলাকার আক্তার আলীর ছেলে মিলন মিয়া (২২)। আটককৃতরা প্রাণ কোম্পানির বাসাইল ও সখীপুর উপজেলার মার্কেটিং বিভাগে দায়িত্বে কর্মরত রয়েছে। সোমবার (৪ নভেম্বর) বাসাইল গোবিন্দ স্কুল এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটেছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা টিনিউজকে জানান, গত কয়েক দিন পূর্বে পার্শ্ববর্তী উপজেলা সখীপুরের চাকদহ্ এলাকা থেকে বাসাইল উপজেলার যৌতকী গ্রামে নানার বাড়ী বেড়াতে আসে ওই কিশোরী। সে সোমবার (৪ নভেম্বর) সকালে বাড়ী থেকে বেরিয়ে যায়। এ সময় ওই ৩ জন তাকে ফুসলিয়ে বাসাইল গোবিন্দ স্কুল পাড়ায় তাদের মেসে নিয়ে যায়। এ সময় আটককৃত ৩ জন ওই কিশোরীকে পালাক্রমে গণধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরী আহত অবস্থায় পালিয়ে গিয়ে বাসাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।
এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি সখীপুর সার্কেল) আব্দুল মতিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে টিনিউজকে বলেন, এ ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সাথে যারাই জড়িত থাকুক তাদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে বলেও তিনি জানান।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ