সখীপুরে বখাটের উত্ত্যক্তে স্কুল ছাত্রীর স্কুলে যাওয়া বন্ধ

শেয়ার করুন

সখীপুর প্রতিনিধি ॥
টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করা এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মেয়েটির ছবি পোস্ট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক বখাটে যুবকের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে ছাত্রীর মা রবিবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সখীপুর থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। এদিকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার রাস্তাটি ওই যুবকের বাড়ির পাশ দিয়ে হওয়ায় মেয়েটি দুই সপ্তাহ ধরে বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।
থানায় দেয়া অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ওই ছেলের নাম আসাদুল ইসলাম (২০)। সে উপজেলার বহেড়াতৈল ইউনিয়নের ঘাটেশ্বরী গ্রামের শবদুল মিয়ার ছেলে। সে তাঁর ফেসবুক আইডিতে প্রেমিকা হিসেবে দাবি করে দু’জনের ছবি এডিট করে ছেড়ে (পোস্ট) দেয়। বিদ্যালয়ে যাওয়ার রাস্তাটি ওই ছেলেটির বাড়ির পাশ দিয়ে হওয়ায় মেয়েটি গত দুই সপ্তাহ ধরে বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।
মেয়েটির নানা ধীরেন্দ্র চন্দ্র কোচ ও ভাই দশারত কোচ টিনিউজকে বলেন, ওই বখাটে ছেলে প্রভাবশালীদের সহায়তা নিয়ে তাদের নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছেন। এ অবস্থায় তাদের পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।
মেয়েটির বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাদেকুর রহমান টিনিউজকে বলেন, বিদ্যালয়ে আসার পথে মেয়েদের উত্ত্যক্ত করার বিষয়ে ওই ছেলের বাড়িতে গেলে সে এক পর্যায়ে তার দিকে তেড়ে আসেন ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।
সখীপুর উপজেলা আদিবাসী ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রবীন্দ্র কুমার বর্মণ টিনিউজকে বলেন, মেয়েটি আমাদের গোত্রের আর ছেলেটি মুসলমান। আমরা সমাজে বড়ই অসহায়। থানা-পুলিশ বিচার না করতে পারলে আমরা মানববন্ধন করব।
সখীপুর থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) গোলাম রাব্বানী টিনিউজকে বলেন, থানায় অভিযোগ আসার খবর পেয়ে আসাদুল এলাকা থেকে পালিয়ে গেছে। গ্রামবাসীর তথ্য অনুসারে আসাদুল বখাটে ও গাঁজাসেবী হিসেবে পরিচিত।
সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম তুহিন আলী টিনিউজকে বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এখন ওই বখাটেকে ধরার চেষ্টা চলছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ব্রেকিং নিউজঃ