যমুনা নদীতে নিখোঁজ শিশুর মরদেহ উদ্ধার

শেয়ার করুন

ভুঞাপুর প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ঈদ উপলক্ষে ঘুরতে গিয়ে পরিবারের সঙ্গে যমুনা নদীতে গিয়ে ছবি তোলার সময় বালু উত্তোলনকারী ভলগেট থেকে যমুনা নদীতে পড়ে নিখোঁজের ৪১ ঘণ্টার পর রাবেয়া (৫) নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (১৬ আগষ্ট) সকাল ১০ টার দিকে উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের ল্যাংড়া বাজার এলাকায় যমুনা নদীতে ওই শিশুর লাশ ভেসে উঠে।  নিহত শিশু রাবেয়া উপজেলার পুনর্বাসন গ্রামের এরশাদ আলীর মেয়ে।

গত বুধবার বিকেলে ভূঞাপুর উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের ল্যাংড়া বাজার এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। পরে এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা অনেক খোজাখোজি করেও ওই  মেয়েটিকে উদ্ধার করেতে পারেনি।

পরিবারের লোকজন জানান, ঈদের আনন্দ উপভোগ করার জন্য পরিবারের সঙ্গে ঘুরতে বের হয়েছিল শিশু রাবেয়া। পরে সবাই ল্যাংড়া বাজার এলাকার যমুনা নদীর তীরে ঘুরতে যায়। পরে নদীতে থাকা বালু উত্তোলনের বলগেটে দাঁড় করিয়ে তার বাবা এরশাদ আলী ছবি তুলছিলেন। এসময় হঠাৎ করে নদীতে পরে যায় রাবেয়া। নদীতে স্রোত বেশি থাকায় পরিবারের সদস্যরা চেষ্টা করেও তার কোনো খোঁজ পায়নি। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধারের চেষ্টা চালায়।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক  আব্দুর রাজ্জাক  বলেন, ‘খবর পেয়েই টাঙ্গাইল ও ভূঞাপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা শিশুটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। কিন্তু তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। উত্তোলনের বলগেট থাকায় উদ্ধার কাজে বিঘ্ন ঘটে। পরে শুক্রবার সকালে ওই মেয়েটির মরদেহ ভেসে উঠে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ