মির্জাপুরে ধর্ষণের অভিযোগে পৌর বিএনপির সম্পাদক কারাগারে

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টারঃ
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নাতনিকে ধর্ষণের অভিযোগে জুলহাস মিয়া নামের এক বিএনপি নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (১৬ মে) রাতে উপজেলার পৌর এলাকার ইউনিয়ন পাড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত জুলহাস মিয়া উপজেলার গোড়াই গ্রামের আলাল মিয়ার ছেলে এবং তিনি মির্জাপুর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক। পরে বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে টাঙ্গাইল কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
পুলিশ এবং মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের ইচাইল গ্রামের ওই কিশোরী (সম্পর্কে জুলহাসের ভাতিজীর মেয়ে) আত্মীয়ের কারণে দীর্ঘদিন ধরে জুলহাসের বাসায় থাকতেন। তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে তাকে ধর্ষণ করতেন। সর্বশেষ গত (৬ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে তার বাসায় জুলহাস তাকে ধর্ষণ করে। পরে বিষয়টি তার মাকে জানায়। এ ঘটনায় বুধবার (১৫ মে) ওই কিশোরী মির্জাপুর থানায় জুলহাসের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন। ওই রাতেই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। ওই কিশোরীর জন্মের এক বছরের মধ্যে তার বাবা মায়ের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। বছর কয়েকের মধ্যে মায়ের অন্যত্র বিয়ে হলে বাবা তার মেয়েকে নিজের কাছে নিয়ে যান। কয়েক বছর আগে কিশোরীর বাবা সৌদি আরবে যাওয়ার সময় মেয়েকে বিশ্বস্ত অভিভাবক হিসেবে জুলহাসের বাসায় লালন পালন করার জন্য রেখে যান।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক টিনিউজকে বলেন, মামলার পর অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিএনপি নেতা জুলহাস পুলিশের কাছে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। পরে বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপরে তাকে আদালতের মাধ্যমে টাঙ্গাইল কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ওই কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ