Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

মধুপুর-ধনবাড়ীতে বিসর্জনের মধ্য দিয়ে দেবী দুর্গার অশ্রুসিক্ত বিদায়

শেয়ার করুন

হাফিজুর রহমান, মধুপুর ॥
বিসর্জনের মধ্য দিয়ে অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবী দুর্গাকে কৈলাসে বিদায় জানায় ভক্ত-অনুগতক্তরা। এভাবেই মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়।
টাঙ্গাইলের মধুপুর-ধনবাড়ী দুই উপজেলার ঝিনাই নদীতে মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) বিকেলের পর থেকে প্রতিমা বিসর্জনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। এরপর শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে ঢাকঢোল, কাঁসর, শঙ্খ বাজিয়ে আনন্দ-উল্লাসে প্রতিমা বিসর্জন দেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। এছাড়া ধনবাড়ী উপজেলার সকল উপজেলার মন্ডপে ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী বিভিন্ন নদী, খাল, বিল, পুকুর ও জলাশয়ে প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয়েছে। এ সময় হাজারো মানুষের সমাগম ঘটে প্রতিমা বিসর্জন স্থলে। এর আগে মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) বিকালে বিভিন্ন মন্ডপ থেকে ট্রাক, পিকআপ ও ভ্যানে তুলে শোভাযাত্রা সহকারে প্রতিমা বিসর্জনের উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়। শঙ্খ-উলুধ্বনি আর ঢাক-ঢোলের তালে তালে নেচে-গেয়ে চোখের জলে ভক্তরা দেবী দুর্গাকে বিদায় জানান। এ সময় দেবীকে শেষ দর্শন করতে হাজারো মানুষের ঢল নামে। বীরতারা, কেন্দুয়ার ঝিনাই নদীতে পায় ২০টি প্রতিমা বির্সজন দেয়া হয়।
এ পূজা উপলক্ষে টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীর বীরতারা সার্বজনীন পূজা মন্ডবে নওগাঁ থেকে আসা রুমা বসাক, বগুড়া জেলার দুপচাচিয়া উপজেলা থেকে আসা তিথী বসাক, জামালপুর থেকে আসা ঝুমা বসাকসহ অনেক দর্শনার্থীরা টিনিউজকে জানান, বর্তমান সরকারের সময়ে খুবই শান্তিপূর্ণভাবে উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যে দুর্গাপূজার উৎসব দিয়ে পালিত হয়েছে। পূজায় আসা দর্শনার্থীরা দেশ ও জাতির কল্যাণ এবং মঙ্গল কামনায় করে।
ধনবাড়ী উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম টিনিউজকে জানান, এদিকে যে কোন ধরনের অপ্রতিকর ঘটনা যাতে না ঘটতে পারে এজন্য পুলিশের পাশাপাশি আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরাও নিয়োজিত ছিল। শান্তিপূর্ণভাবে দুর্গাপূজার প্রতিমা বির্সজনের মধ্যেদিয়ে উৎসব শেষ হয়। চলতি বছর ধনবাড়ী উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ৩১টি মন্ডপে দুর্গাপুজা অনুষ্ঠিত হয়। পুজামন্ডপগুলোতে সরকারের পক্ষ থেকে মন্ডপে মন্ডপে অনুদান দেয়া হয়। দুর্গাপুজাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেয়ায় কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই দুর্গোৎসবের সফল সমাপ্তি হয়েছে। বিজয়া দশমীর দিনে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে তাঁরা এর আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ