মধুপুরে পশু খাদ্য ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে ৫৩ প্রজাতির মিশ্র বাগান

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের মধুপুর শালবনের সমৃদ্ধির জন্য দোখলা রেঞ্জের ৮০ হেক্টর বনভূমিতে দেশী ৫৩ প্রজাতির গাছের চারা রোপণের কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। সুফল প্রজেক্টের আওতায় শালবনের পশু পাখির নিরাপদ খাদ্য, লাল মাটির শালবনের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনা, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষন, দেশী প্রজাতি গাছের সমাহার ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য টেকসই এই মিশ্র বাগান করা হচ্ছে। সোমবার (১৮ মে) গাছের চারা রোপনের কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন টাঙ্গাইল বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ড. জহুরুল হক।
দোখলা রেঞ্জ সূত্রে জানা গেছে, সুফল প্রজেক্টের আওতায় দোখলা রেঞ্জের ৮০ হেক্টর বনভূমিতে প্রতি হেক্টরে ১৫শ’ করে মোট ১ লাখ ২০ হাজার দেশী ৫৩ প্রজাতির গাছের চারা লাগানো হবে। পশু খাদ্য, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষন, বনের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনা, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য টেকসই বন ব্যবস্থাপনার আওতায় গর্জন, জাম, চাপালিশ, ঢেউওয়া, লটকন, গাব, জামরুল, জলপাই, আমড়া, বেল, তেঁতুল, আমলকী, হরটকী, বহেরা, অর্জুন, বকুল, মহুয়া, নাগেশ্বর, নিম, কাটবাদাম, কাজু বাদাম, পেয়ারা, কানাইডিঙ্গা, জয়না, নেউর, চিকরাশি, আজুলী এবং ভেষজ গাছের মধ্যে তালমূল, তেজপাতা, সোনাপাতা, নাগদানা, জইফল, রক্ত চন্দনসহ দেশী প্রজাতির গাছের চারা গোবর ও মিশ্র সার দিয়ে রোপনের কার্যক্রম শুরু করেছে বন বিভাগের দোখলা রেঞ্জ। এসব তথ্য বন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে দোখলা রেঞ্জ কর্মকর্তা আব্দুল আহাদ টিনিউজকে জানান, সুফল প্রজেক্টের আওতায় ষ্টেন্ড ইমপ্রভমেন্ট শাল বন এসোসিয়েট অর্থাৎ শালবনের বিদ্যমান অবস্থা ঠিক রেখে বনের মধ্যে লাল মাটির এ বনের পরিবেশ ও প্রকৃতির সাথে মিল রেখে দেশী ৫৩ প্রজাতির ফুল, ফল, ভেষজ ও পরিবেশ সম্মত টেকসই বাগানের লক্ষ্যে পশু খাদ্য ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য চারা রোপন করা হচ্ছে। এর ফলে শালবনের প্রকৃতি পরিবেশ, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষন ও বনের ঐতিহ্য ফিরে আসবে। বন্যপ্রাণীরা তাদের নিরাপদ খাদ্য পাবে। এই রেঞ্জে ৮০ হেক্টর বনভূমিতে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার গাছের টেকসই মিশ্র সমৃদ্ধশীল বাগান করা হবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ