মধুপুরে নিহত শিশুর লাশ ৩৮ দিন পর কবর থেকে উত্তোলন

শেয়ার করুন

মধুপুর সংবাদদাতা ॥
দাদার হাতে শিশু নাতি নাজমুল (৬) হত্যার অভিযোগে ১৫ দিন পর মামলা এবং মামলা রুজুর ২৩ দিন পর ময়না তদন্ত করার জন্য কবর থেকে ওই শিশুর লাশ উত্তোলন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার বেরিবাঈদ ইউনিয়নের দানকবান্দা এলাকার কবরস্থান থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও মধুপুর সহকারি কমিশনার (ভূমি) মাহবুবুল হকের উপস্থিতিতে পুলিশ লাশ উত্তোলন করে মর্গে প্রেরণ করেছে।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুল হক টিনিউজকে জানান, লাশ গলে যাওয়ায় দেহের অনেক অংশ দেহ থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য বেশি নাড়াচাড়া না করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও অরণখোলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই ফেরদৌস আলম টিনিউজকে জানান, আদালতের নির্দেশে লাশ উত্তোলন করে মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। আসামী আটকেরও চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য, গত (৬ আগস্ট) মধুপুর উপজেলার বেরিবাইদ ইউনিয়নের দানকবান্দা গ্রামের মনির হোসেনের ছেলে নাজমুল হোসেন (৬) সম্পর্কীয় দাদা হাসান আলীর হাতে নিহত হয়। ঘটনা ভিন্ন খাতে চালিয়ে দিতে ওই দাদার উদ্যোগে দ্রুত লাশ দাফন করে ফেলা হয়। এর ৬ দিন পর খুন হওয়ার ঘটনা ফাঁস হয়ে গেলে ঘটনার মোড় উল্টে যায়। এ নিয়ে থানা ও আদালতে ঘুরে শিশুটির বাবা আপন চাচার বিরুদ্ধে মামলা করতে ব্যর্থ হয়। এ অবস্থায় (১৮ আগস্ট) দোষীকে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসী ও স্থানীয় স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা এলাকায় মানববন্ধন করে। এর প্রেক্ষিতে (২০ আগস্ট) আদালতে মামলা রুজু হয়। আদালত ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলনের নির্দেশ দিলে পুলিশ মামলার ২৩ দিন পর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে লাশ উত্তোলন করে মর্গে প্রেরণ করেছেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ব্রেকিং নিউজঃ