মধুপুরের মোটেরবাজারে জনসমাগম ঠেকাতে ছাত্রলীগের কর্মসূচি

শেয়ার করুন

তরিকুল ইসলাম রুবেল, মধুপুর ॥
করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধ ও জনসচেতনতা বাড়াতে প্রশাসন ও স্থানীয় সরকারের পক্ষ থেকে বার বার তাগিদ দেয়ার পরও টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার মোটেরবাজার এলাকায় জনসমাগম বন্ধ হচ্ছিল না। এ নিয়ে টিনিউজ অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ করা হলে স্থানীয় প্রশাসনের টহল পড়ে। প্রতিদিনই পুলিশ ও স্থানীয় মেম্বাররা সচেতনতা তৈরি করতে টহল দিতে থাকে। তবে প্রশাসনের লোকজন চলে যাওয়ার পরপরই আবার নতুন করে সবাই দোকানপাট খোলা শুরু করে। বারবার নিষেধ করা সত্ত্বেও কেউ প্রশাসনের নির্দেশনা মানছেই না।
বুধবার (১ এপ্রিল) সাপ্তাহিক হাট বার থাকায় অন্যান্য দিনের তুলনায় এ দিন জনসমাগম চরম আকার ধারণ করে। কারো মধ্যেই সচেতনতা দেখা যায় না। এই দৃশ্য দেখে জনগণের ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে মোটেরবাজার ছাত্রলীগের নেতৃত্বে মাইকে ঘোষণা দিয়ে ৫ মিনিটের মধ্যে বাজার ছাড়তে বলা হয়। অনেকেই বাজার ছাড়লেও কেউ কেউ তখনও দোকান বন্ধ করছিল না। তাই দোকানে দোকানে গিয়ে তখনই দোকান বন্ধ করতে বাধ্য করে। বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে দোকানের নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি বিক্রি শেষ করতে অনুরোধ করে। ছাত্রলীগের অভিযান শুরুর কিছুক্ষণ পরই পুরো বাজার ফাঁকা হয়ে যায়। সবাই এই উদ্যোগকে স্বাগত জানায়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবু হাসান তাপস, মধুপুর কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি আবু বকর সিদ্দিক রুবেল, মধুপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আরিফ সরকারসহ ছাত্রলীগের অন্যান্য সদস্যরা।
এ সময় মধুপুর কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি আবু বকর সিদ্দিক রুবেল টিনিউজকে জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ ও মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরিতে ছাত্রলীগ সবসময়ই মাঠে থাকবে। ছাত্রলীগ নেতা আবু হাসান তাপস টিনিউজকে বলেন, দেশের মানুষকে সচেতন করতে ও সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে প্রশাসনের পাশাপাশি আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ