বাসাইলে ধুন্দুল চাষে কৃষকদের সাফল্য

শেয়ার করুন

বাসাইল প্রতিনিধিঃ ধুন্দুল সবজি জাতীয় একটি ফসল। ধুন্দুলের তরকারি খেতে বেশ মজাদার ও সুস্বাদু। এ ফসলের পুষ্টি গুনও রয়েছে অনেক। টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলায় চলতি মৌসুমে ধুন্দুলের চাষ করে ব্যাপক সফলতা পেয়েছেন কৃষকরা। বিষমুক্ত হওায়াযয় বাজারে চাহিদাও প্রচুর এ সবজিটির।
টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কৃষকরা অন্যান্য ফল এবং ফসলের পাশাপাাশী ধুন্দুলের চাষ করে থাকেন । চলতি মৌসুমে উপজেলার বিশ হেক্টর জমিতে ধুন্দুল চাষ করা হয়েছে। আধুনিক চাষাবাদ পদ্ধতি ও সঠিক নিয়ম অনুযায়ী চাষাবাদ করায় হেক্টর প্রতি ১০ থেকে ১২ মেট্রিক টন পর্যন্ত ফলন হয়। জমিতে বীজ রোপনের মাত্র দুই মাস পরই ফসল তুলতে পারছেন কৃষকরা। ধুন্দুল চষে কৃষকদের অতিরিক্ত পরিশ্রম ও খরচ করতে হয়না। অনেক কৃষক ধুন্দুলের সাথে সাথী ফসল হিসেবে অন্যান্য সবজিও চাষ করেছেন। লাভজনক ফসল হওয়ার কারনে প্রতিবছরই এ অঞ্চলে বাড়ছে ধুন্দূল চাষের জমি। বিষমুক্ত হওয়ায় বাজারে এখানকার ধুন্দুলের চাহিদা রয়েছে প্রচুর। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায়ও পাঠানো হচ্ছে বিক্রীর জন্য। ধুন্দুল চাষে কৃষকদের সব ধরনের সহাযতা করে যাচ্ছে কৃষি বিভাগ।বাসাইলে দিন দিন বাড়ছে সবজির আবাদ। চলতি মৌসুমে এই এলাকায় বিভিন্ন ধরণের সবজির আবাদ হয়েছে প্রায় ৩শ’ হেক্টর জমিতে। সরকারি সহায়তা পেলে এ আবাদ আরও বাড়বে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ