বাসাইলে করোনার কারণে ১১ বাড়ি লকডাউন

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার, বাসাইল ॥
করোনা আক্রান্ত এবং লকডাউন হওয়া বিভিন্ন এলাকা থেকে টাঙ্গাইলের বাসাইলে গ্রামের বাড়িতে এসে আশ্রয় নেয়া ১১টি বাড়িকে লকডাউন ঘোষনা করা হয়েছে। বুধবার (৮ এপ্রিল) বাসাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুননাহার স্বপ্না এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফজলে এলাহী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে বাড়িগুলো লকডাউন ঘোষনা করেন।
জানা যায়, সস্প্রতি রাজধানী ঢাকার মিরপুর, নারায়নগঞ্জ, গাজীপুরের শ্রীপুর, ময়মনসিংহের ভালুকাসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে টাঙ্গাইলের বাসাইলের গ্রামের বাড়িতে এসে আশ্রয় নেয় ১১টি পরিবার। এসব এলাকার কোথাও করোনা ভাইরাসের কারণে মৃত্যু অথবা কোথাও লকডাউন হওয়ায় সম্প্রতি এসব পরিবার নিজ গ্রামে এসে আশ্রয় নেয় বলে জানা যায়। ওই পরিবারের সদস্যদের থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হবার ভয়ে স্থানীয়রা বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করেন। উপজেলা প্রশাসন বুধবার (৮ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে অভিযান চালিয়ে উপজেলার কাশীল ইউপি’র কাশীল দক্ষিণ পাড়ার হাশেম মিয়ার ছেলে রানা ইব্রাহীম, কদম খানের ছেলে রাজীব খান, পূর্বপাড়ার ট্রাক চালক রানা, নর্থখোলা এলাকার শাহজাহান আলী, বাথুলীশাদী পঞ্চিম পাড়ার গার্মেন্টস কর্মী সুরিয়া বেগম, ফুলকি ইউপি’র গাছপাড়ার মাহমুদ আলীর ছেলে গনি মিয়া, ঝনঝনিয়ার ছানা খানের ছেলে আলআমীনের বাড়িসহ বাসাইল পৌরসভার পালবাড়ির তিনটি বাড়ি এবং হাবলা ইউপি’র বাঐখোলায় ১টি বাড়িকে লকডাউন ঘোষনা করেন।
বাসাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামছুননাহার স্বপ্না টিনিউজকে জানান, আমরা জানতে পেরেছি ঢাকার মিরপুর, নারায়নগঞ্জসহ লকডাউন হওয়া বিভিন্ন এলাকা থেকে ১১টি পরিবার রাতের আধাঁরে লুকিয়ে বাসাইল উপজেলায় এসেছে। করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে তাদের বাড়িগুলো লকডাউন করা হয়েছে। এ সময়ে পরিবারগুলোর খাবার, ওষুধ এবং জরুরী প্রয়োজনে ইউপি চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ