দেলদুয়ারের দুইটি গ্রামকে নিরাপদ সবজীর গ্রাম ঘোষনা

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
নিরাপদ খাদ্য কর্মসুচীর আওতায় টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলা কৃষি বিভাগের উদ্যোগে সকল চাষীদের নিয়ে শুরু করেছে নিরাপদ সবজী চাষ প্রকল্প। ইতিমধ্যে উপজেলার দুইটি গ্রামকে ঘোষনা করা হয়েছে নিরাপদ সবজীর গ্রাম। মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কীটনাশক মুক্ত সবজী বিক্রি করে আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছেন এসব এলাকার কৃষকরা।
জানা যায়, সারাদেশে শুরু হয়েছে নিরাপদ খাদ্য আন্দোলন। বাজারে গিয়ে সবাই খোঁজ নিরাপদ খাদ্য। কৃষি বিভাগও শুরু করেছে নিরাপদ সবজী চাষ প্রকল্প। এই কর্মসুচীর আওতায় টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলা কৃষি বিভাগ উদ্যোগ নিয়েছে সকল চাষীদের নিরাপদ সবজী আবাদ কার্যক্রম। উপজেলার সকল এলাকার কৃষকদের আগ্রহী করা হচ্ছে নিরাপদ সবজী আবাদে। বিভিন্ন গ্রামে আগ্রহী কৃষকদের নিয়ে তৈরী করা হয়েছে নিরাপদ সবজীর মাঠ। কৃষকদের প্রশিক্ষন দেয়া হচ্ছে জমিতে জৈব সার ও সেক্সফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার বিষয়ে। নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কীটনাশক ব্যবহার। বিষমুক্ত নিরাপদ সবজী চাষ করে সবজীর ফলনও পাচ্ছেন ভালো। অপরদিকে কীটনাশকের খরচও বেচে যাচ্ছে। বাজারে নেয়ার সাথে সাথেই বিক্রি হয়ে যাচ্ছে এসব সবজী। এতে করে কৃষকরাও আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছেন অপরদিকে ক্রেতারও পাচ্ছেন বিষমুক্ত নিরাপদ সবজী।
দেলদুয়ার উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শয়েব মাহমুদ টিনিউজকে বলেন, প্রতিনিয়তই কৃষকদের নিয়ে আয়োজন করা হচ্ছে মাঠ দিবসের। উপজেলা কৃষি বিভাগ ইতিমধ্যে আতিয়া ইউনিয়নের মাহমুদপুর ও সদর ইউনিয়নের আলশা এই গ্রাম দুটিকে নিরাপদ সবজী গ্রাম ঘোষনা করেছে। পর্যায়ক্রমে উপজেলার সকল গ্রামকে ঘোষনা করা হবে নিরাপদ সবজীর গ্রাম হিসেবে, এমনটাই জানিয়েছে কৃষি বিভাগ। টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারের মতো দেশের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়বে নিরাপদ সবজী চাষ।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ