Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

দুই বছর ধরে প্রবাসে তবুও টিকে আছে ইউপি সদস্য পদ

শেয়ার করুন

ঘাটাইল প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দিঘলকান্দি ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ মনিরুজ্জামান মনির। সারাদেশ ব্যাপি মাদক বিরোধী অভিযানের সময় ২০১৭ সালের ৫ জুন উপজেলার হামিদপুর বাজার থেকে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন তিনি। গ্রেপ্তারের পর জামিনে বের হওয়ার পর থেকেই সে এলাকাছাড়া। তিনি নিখোঁজ রয়েছেন প্রবাস না আত্মগোপনে রয়েছেন তা কেউ বলতে পারছেন না। তবে তার পরিবারের লোকজন বলছে তিনি বিদেশে চলে গেছেন। দীর্ঘ দুই বছর তিনি ইউনিয়ন পরিষদের কোন সভায় উপস্থিত না থাকলেও তার সদস্য পদ টিকে আছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৭ সালের আগষ্ট মাসে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় থেকে সর্বশেষ সম্মানী ভাতা উত্তোলন করেছেন তিনি। মনির মেম্মারের এলাকায় অনুপস্থিতির বিষয়টি এখনও লিখিতভাবে অবগত নন স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়। সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানও স্থানীয় প্রশাসনকে লিখিতভাবে অবগত করেননি। অথচ স্থানীয় সরকারের ইউনিয়ন পরিষদের আইনে পরপর তিনটি সভায় উপস্থিত না থাকলে তার সদস্য পদ বাতিল হওয়ার বিধান আছে। দীর্ঘ দুই বছর যাবৎ তিনি এলাকায় না থাকার কারনে সরকারি সকল প্রকার বরাদ্ধ ও উন্নয়ন কর্মকান্ড থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ৮ নং ওয়ার্ডের সাধারন মানুষ। বিভিন্ন ধরনের ভাতা ভোগীদের তালিকা প্রস্তুতিতেও জটিলতার সৃষ্টি হচ্ছে।
মনির মেম্বার ঘাটাইল উপজেলার নাটশালা গ্রামের শাহজাহান তালুকদারের ছেলে। তিনি ২০১৬ সালের নির্বাচনে উপজেলার দিঘলকান্দি ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড থেকে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন। সে একজন চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ি। এলকায় সে মাদক সম্্রাট ও ইয়াবা মনির হিসাবে পরিচিত ছিলেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ এক সময় দিনমজুরের কাজ করা মনির মেম্বার মাদকের ব্যবসা করে গ্রামের বাড়িতে বহুতল ভবন নির্মাণসহ প্রচুর অর্থভিত্তের মালিক হয়েছেন। তার বিরুদ্ধে ঘাটাইল থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে এক ডজনেরও বেশী মামলা রয়েছে।
দিঘলকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, তার অনুপস্থিতির বিষয়টি লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানো হয়নি। তিনি নিখোঁজ না আত্মগোপনে আছেন তা সঠিক বলতে পারব না। তবে তাদের পরিবারের লোকজনের কাছ থেকে জানতে পেরেছি তিনি নাকি বিদেশ চলে গেছেন।
ইউপি সদস্য মনির মেম্বারের বাবা শাহজাহান তালুকদার কাছে তার ছেলে কোথায় জানতে চাইলে সে জানায়, তার ছেলে গত দুই বছর আগে দক্ষিন আফ্রিকায় প্রবাসে চলে গেছেন
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম বলেন, এলাকাবাসী ও ইউপি চেয়ারম্যান কেউ আমাকে বিষয়টি লিখিতভাবে অবগত করেননি। তবে বিষয়টি আমার নজরে এসেছে এ ব্যাপরে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ