Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব আন্তঃ উপজেলা ক্রিকেট টুর্নামেন্টের সফল সমাপ্তি

শেয়ার করুন

মোজাম্মেল হক ॥
সাংবাদিকতা মানেই মহান পেশা। সাংবাদিকরা বিভিন্ন ঘটনাকে সুন্দর ভাবে লিখে উপস্থাপন করে পাঠকদের জন্য। আর পাঠকবৃন্দ সাংবাদিকদের ভাল ও চমৎকার সংবাদকে গুরুত্ব সহকারে পড়ে। “স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল্য” অর্থাৎ স্বাস্থ্য ভাল থাকলে মন ভাল থাকবে, মন ভাল থাকলে কাজ কর্মে উদ্দীপনা পাবে এটা সত্য কথা। সাংবাদিকদের একটা সংবাদ সংগ্রহ করতে মাঝে মাঝে প্রচুর ধৈর্যের সাথে পরিশ্রম করতে হয়। এর জন্য প্রয়োজন সুস্থ শরীর। সাংবাদিকদের অক্লান্ত পরিশ্রমে পাঠকদের জন্য ভাল একটা সংবাদ তৈরী হয়। টাঙ্গাইল জেলার সকল সংবাদ পরিবেশনের জন্য সাংবাদিকরা ঐক্যবদ্ধ। সাংবাদিকদের জন্য রয়েছে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব। যেখানে টাঙ্গাইল জেলার সকল সাংবাদিকরা একটা নিয়ম শৃঙ্খলার মধ্যে আছে।
টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে এ বছর পালিত হচ্ছে ৫০ বছর পূর্তি উৎসব। আন্তঃ উপজেলা প্রেসক্লাব ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজন ছিল তারই অংশ। টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে অত্যন্ত সুন্দর ও স্বার্থকভাবে এই ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু ও শেষ হয়েছে। টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক কাজী জাকেরুল মওলা, ক্রীড়া সম্পাদক খন্দকার মাসুদুল আলম ও টুর্নামেন্টের সদস্য সচিব ইফতেখারুল অনুপমের অক্লান্ত পরিশ্রমে ফল এই স্বার্থক আন্তঃ উপজেলা ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। বিশেষ করে টুর্নামেন্টের সদস্য সচিব ইফতেখারুল অনুপমের কথা আলাদা করে বলতেই হয়। সকল সাংবাদিকদের মাঝে আন্তরিকার পাশাপাশি ভাল সর্ম্পক তৈরী করা, সবাইকে একই ছাদের নিচে অবস্থান করার উদ্দেশ্যে ইফতেখারুল অনুপম প্রথম এই টুর্নামেন্ট করার চিন্তা ভাবনা করেন এবং টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পরামর্শে সকল উপজেলা প্রেসক্লাবের সাথে যোগাযোগ করেন।
উপজেলা প্রেসক্লাব গুলোর স্বতফুর্ত অংশগ্রহণে (১২ ফেব্রুয়ারী) টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন হয়। শুভ উদ্বোধন করেন বাসাইল-সখিপুর উপজেলার সংসদ সদস্য ও টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জোয়াহেরুল ইসলাম জোয়াহের। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল পুলিশ সুপার ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি সঞ্জিত কুমার রায়, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মির্জা মঈনুল হোসেন লিন্টু। টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী জাকেরুল মওলা, টুর্নামেন্ট কমিটির আহবায়ক খন্দকার মাসুদুল আলম ও টুর্নামেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ইফতেখারুল অনুপম।
তিনটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ১০টি উপজেলা প্রেসক্লাব টুর্নামেন্টে অংশগ্রহন করে। “ক” গ্রুপে ঘাটাইল প্রেসক্লাব, দেলদুয়ার প্রেসক্লাব ও নাগরপুর প্রেসক্লাব। “ খ” গ্রুপে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব, ভুঞাপুর প্রেসক্লাব, কালিহাতী প্রেসক্লাব ও বাসাইল প্রেসক্লাব। “গ” গ্রুপে মির্জাপুর প্রেসক্লাব, গোপালপুর প্রেসক্লাব ও সখিপুর প্রেসক্লাব। উদ্বোধনী দিনের খেলায় দেলদুয়ার প্রেসক্লাব ৫ উইকেটে ঘাটাইল প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে কালিহাতী প্রেসক্লাব ৩৪ রানে বাসাইল উপজেলাকে পরাজিত করে। গত (১৩ ফেব্রুয়ারী) দ্বিতীয় দিনের প্রথম খেলায় টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব ৪৮ রানে ভুঞাপুর প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে এবং দিনের দ্বিতীয় খেলায় মির্জাপুর প্রেসক্লাব ৮ উইকেটে গোপালপুর প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে। গত (১৪ ফেব্রুয়ারী) দেলদুয়ার প্রেসক্লাব ৯ উইকেটে নাগরপুর প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে এবং দিনের দ্বিতীয় খেলায় ভুঞাপুর প্রেসক্লাব ৮ উইকেটে বাসাইল প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে। গত (১৫ ফেব্রুয়ারী) সকালে কালিহাতী প্রেসক্লাব ৯ রানে ভুঞাপুর প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে এবং বিকালে মির্জাপুর প্রেসক্লাব ৬ উইকেটে সখিপুর প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে। গত (১৬ ফেব্রুয়ারী) সকালে ঘাটাইল প্রেসক্লাব ৬ উইকেটে নাগরপুর প্রেসক্লাবকে এবং বিকালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব ৯ উইকেটে কালিহাতী প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে। গত (১৭ ফেব্রুয়ারী) সকালে বাসাইল প্রেসক্লাব ৫ উইকেটে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবকে এবং বিকালে সখিপুর প্রেসক্লাব ৯ উইকেটে গোপালপুর প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে।
গত (১৮ ফেব্রুয়ারী) ১ম সেমিফাইনালে কালিহাতী প্রেসক্লাব ৭১ রানে দেলদুয়ার প্রেসক্লাবকে এবং দ্বিতীয় সেমিফাইনালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব ৩ রানে মির্জাপুর প্রেসক্লাবকে পরাজিত করে ফাইনালে উঠে। গত (১৯ ফেব্রুয়ারী) ফাইনালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব ৯ উইকেটে কালিহাতী প্রেসক্লাবকে পরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়। ফাইনাল ও পুরো টুর্নামেন্টে ব্যাটে ও বলে চমৎকার খেলার কারণে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের ইফতেখারুল অনুপম ম্যান অব দ্যা ম্যাচ ও ম্যান অব দ্যা সিরিজ নির্বাচিত হয়। এছাড়া টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ব্যাটসম্যান হলেন ইফতেখারুল অনুপম (১৪৮ রান) ও সেরা বোলার দেলদুয়ার প্রেসক্লাবের আরিফুল (৯টি উইকেট)। ফাইনাল শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণ করেন টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মির্জা মঈনুল হোসেন লিন্টু, জেলা তথ্য অফিসার কাজী গোলাম আহাদ, টুর্নামেন্টের আহবায়ক খন্দকার মাসুদুল আলম ও সদস্য সচিব ইফতেখারুল অনুপম প্রমুখ।
টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী জাকেরুল মওলা। পুরো টুর্নামেন্টে জুড়েই আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করেন তমাল বিহারী দাস, ভ্রমন চন্দ্র ঘোষ ঝুটন, রবিন সরকার ও সুমন সরকার। স্কোরার ছিলেন মোজাম্মেল হক। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হলেন- ইফতেখারুল অনুপম (টাঙ্গাইল) ১৪৮, কাউসার হোসেন (মির্জাপুর) ১৩৭, শামীম আল মামুন (টাঙ্গাইল) ১১৪, মালেক আদনান (টাঙ্গাইল) ১০৫, আনিসুর রহমান শেলি (কালিহাতী) ১০৩ ও রশিদ (গোপালপুর) ১০৩, টুর্নামেন্টে ৯টি হাফ সেঞ্চুরীঃ তার মালেক আদনান (টাঙ্গাইল) ২টি, ৫০ ও ৫৩ রান, কাউসার (মির্জাপুর) ৮৫ রান, রশিদ (গোপালপুর) ৭৩ রান, মুস্তাক (টাঙ্গাইল) ৬৩ রান, সাইফুল ইসলাম সানি (সখিপুর) ৫৩ রান, ইসমাইল (সখিপুর) ৫৩ রান, শামীম আল মামুন (টাঙ্গাইল) ৫৬ রান ও ইফতেখারুল অনুপম (টাঙ্গাইল) ৫৯ ও মিলন হোসেন (ঘাটাইল) ৫৪ রান। সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহকারীঃ আরিফুল ইসলাম (দেলদুয়ার) ৮টি উইকেট, ইফতেখারুল অনুপম (টাঙ্গাইল) ৭টি, আনিসুর রহমান শেলি (কালিহাতী) ৭টি, অভিজিৎ (ভুঞাপুর) ৬টি, আবু সাঈদ ও সুমন কুমার রায় (টাঙ্গাইল) ৫টি।
যেসব সাংবাদিক বিভিন্ন উপজেলার হয়ে টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেছে তারা হলো- টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব- ইফতেখারুল অনুপম (অধিনায়ক), মালেক আদনান, শামীম আল মামুন, আরিফুর রহমান টগর, সুমন কুমার রায়, আবু সাঈদ, মহিউদ্দিন সুমন, অরন্য ইমতিয়াজ, নাসির হোসেন, মোস্তাক আহমেদ, খন্দকার মাসুদুল আলম, মির্জা শাকিল, ফারুক হোসেন ও মোস্তফা। কালিহাতী প্রেসক্লাব- শাহআলম, কাজল আর্য, সুমন ঘোষ, মেহেদী হাসান মৃদুল, আনিসুর রহমান শেলি, জাহাঙ্গীর হোসেন, সাইদুর রহমান সমির, ফারুক হোসেন, সোহেল, শুভ্র ও অতিথি খেলোয়াড়- সুমন খান বাবু, অলক কুমার দাস, কাজী রিপন। গোপালপুর প্রেসক্লাব- জয়নাল আবেদীন, খন্দকার আব্দুস সাত্তার, কে এম মিঠু, সন্তোষ কুমার দত্ত, কায়ছার মিয়া, সেলিম হোসেন, বিধান চন্দ্র রায়, সাইফুল ইসলাম, নুর আলম ও অতিথি খেলোয়াড়- হাবিব খান, রশিদ , উজ্জল, এরশাদ, তারেক ও শফি। ভূঞাপুর প্রেসক্লাব- আসাদুল ইসলাম বাবুল, আতোয়ার রহমান তালুকদার, আখতার হোসেন খান, আব্দুর রাজ্জাক, সৈয়দ সরোয়ার সাদী, অভিজিৎ ঘোষ, শফিকুল ইসলাম শাহীন, ইব্রাহীম ভূইঁয়া, আলীম আকন্দ, কামাল হোসেন, সিরাজুল ইসলাম কিসলু, খন্দকার এনামুল হক, শাহআলম, মিজানুর রহমান,মামুন সরকার ও অতিথি খেলোয়াড়- মোজাম্মেল হক, আব্দুল রহিম ও কায়ছার। বাসাইল প্রেসক্লাব- মুসলিম উদ্দিন আহমেদ, আব্দুল কাশেম মিয়া, মাহমুদুল হাসান, এমকে ভুঁইয়া সোহেল, খাইরুল ইসলাম তালহা, রুবেল মিয়া, এনায়েত করিম বিজয়, মাসুদ রানা, আশিকুর রহমান পলাশ, এম শহিদুল ইসলাম, আব্দুল লতিফ ও অতিথি খেলোয়াড়- ফারহানুল কবীর ও ইসমাইল হোসেন সেলিম। ঘাটাইল প্রেসক্লাব- নজরুল ইসলাম, খান, ফজলুর রহমান, নুরুজ্জামান মিঞা, আব্দুল লতিফ, মাসুম মিয়া, এবিএম আতিকুর রহমান, মনোয়ার হোসেন সোহেল, মোহাম্মদ কামাল হোসেন, আনোয়ার হোসেন বকুল, আতিকুর রহমান, আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, হামিদুল্লাহ, বিষ্ণু প্রিয় দীপ, মাজহারুল শিহাব, রেজাউল করিম খান রাজু ও খাদেমুল ইসলাম মামুন, রায়হান মিয়া, শহিদুল ইসলাম, কায়সার কবির ও রেজাউল করিম লিটন। দেলদুয়ার প্রেসক্লাব- নুরুল ইসলাম, কবিরুল ইসলাম, করিম মিয়া, শিপলু, আসাদুজ্জামান ডলার, শরিফুল ইসলাম, তারিকুল ইসলাম তাহের, আরিফুল ইসলাম, তানভীর সিদ্দিকী রোকন, নাজমুল হোসেন, আব্দুল গফুর সরকার, একেএম রাজু আহমেদ, মুরাদ ও ফরিদ। মির্জাপুর প্রেসক্লাব- শামসুল ইসলাম শহিদ, জাহাঙ্গীর হোসেন, এসএম শিপন, আশরাফ আহমেদ, হারুণ-অর-রশীদ, দুর্লভ বিশ্বাস, সালাহউদ্দিন আহমেদ, শামীম আল মামুন, এরশাদ মিঞা, রায়হান সরকার রবিন, শাহ বজলুর রশিদ বিজু, নিরঞ্জন পাল, কাউসার হোসেন, আবুল কাশেম খান, শাহাদৎ হোসেন সুমন, ইমরান, জহিরুল ইসলাম শেলি, মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, জাহিদুল ইসলাম বিপ্লব, রিপন মিয়া, শাহ সৈকত মুন্না। অতিথি খেলোয়াড়- রবিন তালুকদার, একরামুল হক খান তুহিন, কাদির তালুকদার। নাগরপুর প্রেসক্লাব- আক্তারুজ্জামান বাবুল, আবু বকর সিদ্দিক, পংকজ কুমার সাহা, এরশাদ মিয়া, কে এম সেলিম, মাসুদুর রহমান, শ্যামল কুমার, মানিক মিয়া, কায়কোবাদ মিয়া, শহিদুল ইসলাম, শহিদুল হক এলিস, মতিউর রহমান, জসিউর রহমান লুকন, হারুন-অর রশীদ খান। অতিথি খেলোয়াড়- কাজী জাকেরুল মওলা, তোফায়েল আহমেদ রনি, মামুনুর রহমান ও সৈকত খান। সখিপুর প্রেসক্লাব- ইকবাল গফুর, ফজলুল হক, সাজ্জাদ লতিফ, মামুন হায়দার, সাইফুল ইসলাম শাফলু, মুহাম্মদ আমিনুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম সানি, মোজাম্মেল হক সজল, জুলহাস গায়েন, জুয়েল রানা, শাকিল আনোয়ার, এনামুল হক, মতিউর রহমান, নজরুল ইসলাম নাহিদ, তাইবুর রহমান,মাসুদ রানা, আনোয়ার কবির, আল রাজীব, ইসমাইল হোসেন, মামুন আহমেদ ও আলীম মাহমুদ।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ