Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

টাঙ্গাইলে শেষ মুর্হুতে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা

শেয়ার করুন

হাসান সিকদার ॥
চলছে ঈদের কেনাকাটা। টাঙ্গাইলে শেষ মুর্হুতে কেনাকাটা জমে উঠেছে। তবে এবার পোশাকের দাম বেশি বলে জানিয়েছেন ক্রেতারা। জেলার সব মার্কেটে পোশাক, কসমেটিক্স ও জুতা কেনাকাটার উৎসব চলছে। দোকানে বিভিন্ন রং ও বর্ণের শাড়ি, লুঙি, পাঞ্জাবি, থ্রিপিস, লেহেঙ্গা, শার্ট, গেঞ্জিসহ শিশু পোশাকের বিপুল সমাহার ঘটেছে।
জানা যায়, ঈদ উপলক্ষে মার্কেটগুলোতে চলছে শেষ মুর্হুতের কেনাকাটার উৎসব। ২০ রমজানের পর থেকেই পোশাকের দোকানগুলোতে মুলত রমরমা বেচাকেনা বেড়ে গেছে। দাম নিয়ে অসন্তোষ ক্রেতাদের। তবে গুণগত মানের কারণে দাম বেশি পড়ছে বলে বিক্রেতাদের দাবি। শাড়ি, ছিটকাপড়, থ্রিপিসসহ তৈরি পোশাকের দোকানগুলোতে ভিড় লেগেই আছে। এ বছরও ঈদ বাজারে মেয়েদের বিশেষ আকর্ষণ গাউন। দিলওয়ালি আর বাজরাঙ্গিসহ নানা নামে পাওয়া যাচ্ছে গাউন। পাশাপাশি সিল্কের থ্রিপিসের বেশ চাহিদা রয়েছে। মধ্যবয়সী নারীদের জন্য রয়েছে শাড়ির পসরা। তবে এ বছর দাম যেন আকাশ ছোঁয়া। মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্তদের কাছে পছন্দের পোশাক নাগালের বাইরে চলে গেছে বলে ক্রেতাদের অভিযোগ। দুই হাজার থেকে সাত হাজার টাকায় মেয়েদের গাউন বিক্রি হচ্ছে।
ঈদ বাজারকে উৎসবমুখর করতে সাজানো হয়েছে দেলদুয়ারে তাঁতের রাজধানী হিসেবে পরিচিত পাথরাইলের মার্কেটগুলোকে সব বয়সী ক্রেতাদের ভিড়ে পাল্টে গেছে মার্কেটগুলোর দিন-রাত্রির ব্যবধান। চাহিদার সবটা আর পছন্দের পুরোটা পেয়ে খুশি ক্রেতারা। দাম নিয়ে নেই বিশেষ অভিযোগ। অন্যদিকে জমজমাট বেচা-বিক্রিতে উৎফুল্ল¬ বিক্রেতারাও। বিক্রেতারা টিনিউজকে জানান, সারা দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ক্রেতারা আসে টাঙ্গাইলের পাথরাইলে তাঁতের শাড়ী কিনতে।
ঈদের কেনাকাটা করতে নারী-শিশুসহ সব বয়সী মানুষের স্রোত এখন মার্কেটের দিকে। টাঙ্গাইল শহরের নিউ সমবায় মার্কেট, টাঙ্গাইল প্লাজা, কল্যান প্লাজা, আলী কমপ্লেক্্র, সবুর খান টাওয়ার, হীরা সুপার মার্কেট, মাহমুদুল হাসান কলেজ মার্কেট, ক্যাপসুল মার্কেট, আকুরটুকুর পাড়ার শো-রুমসহ সব মার্কেটে পোশাক, কসমেটিক্স ও জুতা কেনাকাটার উৎসব চলছে। বিভিন্ন রং ও বর্ণের শাড়ি, লুঙি, পাঞ্জাবি, থ্রিপিস, লেহেঙ্গা, শার্ট, গেঞ্জিসহ শিশু পোশাকের বিপুল সমাহার ঘটেছে প্রতিটি দোকানে। পিছিয়ে নেই ওই সব মার্কেটের কসমেটিক্সসহ বিভিন্ন সাজসজ্জা ও জুতার দোকানগুলোও। ক্রেতারা টিনিউজকে বলেন, এবার মার্কেটগুলোতে হরেক রকমের পণ্যের সমাগম ঘটেছে। তাই মনের মতো কেনাকাটা করতে সমস্যা হচ্ছে না।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ