টাঙ্গাইলে নতুন করে আরও ১৯ জন করোনায় আক্রান্ত

শেয়ার করুন

এম কবির ॥
টাঙ্গাইলে গত ২৪ ঘন্টায় রবিবার (৩১ মে) নতুন করে ১৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট ১৬৫ জনের দেহে করোনার ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মির্জাপুরে ৮, ভূঞাপুরে ৭, সখীপুরে ৬, নাগরপুরে ৫, টাঙ্গাইল সদরে ৪, দেলদুয়ারে ৪, গোপালপুরে ৩, ধনবাড়ীতে ২, মধুপুরে ২, বাসাইলে ১ ও ঘাটাইলে ১ জনসহ মোট ৪৩ জন সুস্থ হয়েছে। আর ঘাটাইলে ২, মির্জাপুরে ১, ধনবাড়ীতে ১ ও গোপালপুরে ১ জনসহ মোট ৫ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।
গত ২৪ ঘন্টায় রবিবার (৩১ মে) নতুন করে আক্রান্তরা হলো- নাগরপুরে ২ পুলিশসহ ৫ জন, দেলদুয়ারে দেউলী ইউনিয়নের বাবুপুর ১, টেউরিয়া ১ ও ফাজিলহাটি ইউনিয়নের কামারনওগা সিকদার পাড়ায় ১ জন। গোপালপুরে হাদিরা ইউনিয়নের চাতুটিয়া ২ এবং ঝাওয়াইল ইউনিয়নের কাহেতা ১ জন। মধুপুরের আউশনারা ইউনিয়নের আউশনারায় ১ ও মোটের বাজারে ১ জন। টাঙ্গাইল সদরের গালা ইউনিয়নের ফৈলারঘোনায় ১ ও দাইন্যা ইউনিয়নের বাসা খানপুরে ১ জন। ঘাটাইলের আশারিয়াচালায় ১ জন, কালিহাতীর নারান্দিয়ার দৌলতপুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ১ জন, সখীপুরে গজারিয়ার কালিয়ানপাড়ায় ১ জন, মির্জাপুরের মহেড়ার গ্রামনাহালীতে ১ জন।
এদিকে করোনা ভাইরাসের পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইলের বিভিন্ন উপজেলা থেকে ৫১০৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রবিবার (৩১ মে) নতুন করে ১৪৯ জনের নমুনা ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ১৯ জনের করোনা রেজাল্ট পজেটিভ এসেছে। হোম কোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয়েছে ৯৬ জনকে। ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে ১৪৮ জনকে। বুধবার (২৭ মে) পর্যন্ত ৪৫৭৩ জনের রিপোর্ট হাতে পেয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। এদের মধ্যে ১৬৫ জনের ফলাফল প্রজেটিভ এসেছে। বাকিগুলোর ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। ৩৮৪টি নমুনার রেজাল্ট এখনো পাওয়া যায়নি। বর্তমানে জেলায় মোট ১৬৫ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে ৩ জনকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ৫০ বেডের করোনা ডেডিকেডেট ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন উপজেলার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৫ জন। আক্রান্ত বাকি ১১০জন ঢাকা, ময়মনসিংহ হাসপাতালে ও নিজ নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান টিনিউজকে বলেন, টাঙ্গাইল জেলায় এ পর্যন্ত ১৬৫ জন করোনা ভাইরাস রোগী সনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে মির্জাপুরে ৩২, দেলদুয়ারে ২৩, নাগরপুরে ২১, মধুপুরে ১৫, টাঙ্গাইল সদরে ১৩, ধনবাড়ীতে ১১, গোপালপুরে ১১, কালিহাতীতে ১০, ঘাটাইলে ১০, ভূঞাপুরে ৯, সখীপুরে ৮, ও বাসাইলে ২ জন রয়েছে।
এদের মধ্যে মির্জাপুরে ৮, ভূঞাপুরে ৭, সখীপুরে ৬, নাগরপুরে ৫, টাঙ্গাইল সদরে ৪, দেলদুয়ারে ৪, গোপালপুরে ৩, ধনবাড়ীতে ২, মধুপুরে ২, বাসাইলে ১ ও ঘাটাইলে ১ জনসহ মোট ৪৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
এছাড়া জেলায় করোনা ভাইরাসে এ পর্যন্ত ৫ জন মারা গিয়েছে। নিহতরা হলো- ঘাটাইলে মহিউদ্দিন, আব্দুল মান্নান খান, মির্জাপুরে রেনু বেগম, ধনবাড়ীতে আব্দুল করিম ভুইয়া, গোপালপুরের ঝাওয়াইলে ফার্মাসিস্ট প্রশান্ত কুমার চন্দ।
জেলায় এখন পর্যন্ত ১০৮৩০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনের ও হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয়েছিল। এদের মধ্যে ৯ হাজার ৯৮ জনকে কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছে। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ১ হাজার ৭৩২ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ৫০ বেডের করোনা ডেডিকেডেট ইউনিটে ভর্তি রয়েছে ৩ জন।
উল্লেখ্য, গত (১ মার্চ) থেকে রবিবার (১৭ মে) পর্যন্ত বিদেশে থেকে জেলায় এসেছে ৫ হাজার ৭০৫ জন। কোভিড-১৯ চিকিৎসায় প্রস্তুত রয়েছে জেলার সরকারী হাসপাতালের ৫০টি বেড, উপজেলা পর্যায়ে আইসোলেশন বেড রয়েছে ৫৮টি। ডাক্তার রয়েছে ২৪২ জন, নার্স রয়েছে ৪১৯ জন। করোনা আক্রান্ত রোগী আনা নেয়া করার জন্য এ্যাম্বুুলেন্স রয়েছে ২টি। শনিবার (৩০ মে) পর্যন্ত ব্যক্তিগত সুরক্ষা সমগ্রী পিপিই মজুদ রয়েছে ৫ হাজার ৫৯১টি এবং মাস্ক ৪ হাজার ৮টি। এছাড়া শনিবার (৩০ মে) পর্যন্ত জেলায় ১ লাখ ৮১ হাজার ৬০০ পরিবারের মধ্যে ২২৩২ মে.টন চাল ও ৫৮ হাজার ৬১০টি পরিবারের মধ্যে নগদ ১ কোটি ১৭ লাখ ২১ হাজার ৯০০ টাকা ও শিশু খাদ্য বাবদ ১৮ হাজার ৯৪০ পরিবারকে ৩৩ লাখ ৫৪ হাজার ৯৬০ টাকা প্রদান করেছে জেলা প্রশাসন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ