Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

ঘাটাইল পৌর শহরে ময়লা-আবর্জনায় পরিবেশ দূষিত

শেয়ার করুন

ঘাটাইল সংবাদদাতা ॥
টাঙ্গাইলের ঘাটাইল পৌরসভার বর্জ্য নিষ্কাশনে অব্যবস্থাপনার ফলে যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনায় পরিবেশ দূষিত হয়ে পড়ছে। দেশের বিভিন্ন শহরে ঢুকতে তোরণ বা স্বাগতম লেখা সাইনবোর্ড চোখে পড়ে। কিন্তু টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলা পৌর এলাকায় প্রবেশের সময় তোরণ বা স্বাগতম সংবলিত সাইনবোর্ডের সাথে শহরের প্রবেশদ্বার গুনগ্রাম চোখে পড়ে ময়লা-আবর্জনার স্তুপ। আর এই আবর্জনার দুর্গন্ধ নাকে বহন করে ঢুকতে হয় পৌর এলাকায়। পৌর শহরের ব্যবসায়ী ও বাসাবাড়ির নিত্যদিনের ময়লা-আবর্জনা যেখানে-সেখানে ফেলায় শহরের পরিবেশ নোংরা হচ্ছে। এসব বর্জ্য অপসারণের কোন ব্যবস্থা না থাকায় গন্ধে অতিষ্ঠ পৌরবাসী।
জানা যায়, পৌরসভা জুড়ে দুর্গন্ধে নাগরিক দুভোর্গের শেষ নেই। রাস্তার পাশে, বাজারে, স্কুল, কলেজের সামনে যত্রতত্রভাবে পড়ে রয়েছে ময়লা-আবর্জনা। শহরে প্রায় এলাকায় রয়েছে ময়লার স্তুুপ। এ যেন দুগর্ন্ধের শহর। স্থানীয় চায়ের দোকানদার আবু তাহের বলেন, দীর্ঘ ১৫ দিন যাবৎ বাজার এলাকায় ময়লা-আবর্জনার স্তুপ পড়ে রয়েছে। পৌরসভা থেকে কোন ধরণের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। এই ময়লা-আবর্জনার স্তুুপে দুর্গন্ধে থাকা যায় না। রিক্সাচালক শফিক বলেন, মেয়র স্যারতো এসি রুমে বসে থাকেন। আমাদের মতো তিনি রাস্তায় সবসময় চলাফেরা করেন না। তাই তিনি গন্ধের কি বুঝবেন। স্থানীয় বাসিন্দা শিক্ষক আকরাম হোসেন, চিকিৎসক বজলুর রহমান জানান, এমন অবর্জনার শহরে বসবাস করা খুবই কঠিন। পৌর কর নিচ্ছে আমাদের কাছ থেকে, কিন্তু নাগরিক কোন সুবিধাই পৌরসভা দিচ্ছে না।
এসব বিষয়ে জানতে চাইলে ঘাটাইল পৌরসভার মেয়র শহীদুজ্জামান খান জানান, পৌরসভার ময়লা-আবর্জনা ফেলার নির্দিষ্ট কোন জায়গা না থাকায় যত্রতত্র ময়লা ফেলা হচ্ছে। পৌর এলাকার বিভিন্ন জায়গা থেকে ময়লা সংগ্রহ করে দিনের বেলায় পৌরসভার গাড়ীতেই রেখে দেয়া হয়। সুযোগ বুঝে রাতের অন্ধকারে গোপনে কোন না কোন স্থানে তা ফেলে আসা হয়।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ