Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

ঘাটাইল উপজেলা নির্বাচনে ভোটারদের দুয়ারে প্রার্থীরা

শেয়ার করুন

আব্দুল লতিফ, ঘাটাইল ॥
আর মাত্র কয়েক দিন, সামনে আসছে শুভ দিন। রুচিশীল এমন নানান শ্লোগানে গ্রামগঞ্জের অলি-গলিতে চলছে মাইকিং। পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে পাড়া-মহল্লা। আরামের ঘুম হারাম করে ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে ছুটছেন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীরা। চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদের ভোট গ্রহণের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই বাড়ছে ভোটের মাঠে উত্তাপ। টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে বইছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ঝড়ো হাওয়া। সেই সাথে প্রার্থীরা শুরু করেছেন প্রচারণার দৌড়ঝাপ। কে কোন দলের প্রার্থী, কার কেমন চরিত্র, জনসেবায় কার কি অবদান। এটাই এখন আলোচনার মূল বিষয়। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে প্রতিটি আড্ডাস্থলই এখন উপজেলা নির্বাচনের আলোচনার কেন্দ্র হয়ে দাঁড়িয়েছে। একই সাথে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিনিয়ত চলছে পছন্দের প্রার্থীদের নিয়ে সমর্থকদের উচ্ছাস। আগামী (৩১ মার্চ) এই উপজেলায় ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
এই উপজেলায় ৩টি পদের বিপরীতে ১৯জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে দু’জন বিদ্রোহী প্রার্থীসহ ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বি করছেন। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে (নৌকা) প্রতীক নিয়ে লড়ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম লেবু। এছাড়া বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খান হেস্টিংস প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (মোটর সাইকেল) প্রতীক নিয়ে, উপজেলা সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আরিফ হোসেন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (আনারস) প্রতীক নিয়ে। মিতালী গ্রুপের এমডি সৈয়দ এহসান আবদুল্লাহ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (হেলিকপ্টর) প্রতীক নিয়ে। এছাড়া শফিকুল ইসলাম খান জনি (ঘোড়া) প্রতীক ও জাকের পার্টির মনোনীত প্রার্থী মনিরুজ্জামান খান (গোলাপ ফুল) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫ জন প্রার্থী। তারা হলেন- উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন লড়ছেন (টিউবওয়েল) প্রতীক নিয়ে, যুবলীগ নেতা সুলতান মাহমুদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (চশমা) প্রতীক নিয়ে। যুবলীগ নেতা সুমন খান বাবু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (টিয়া পাখি) প্রতীক নিয়ে। কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সহসভাপতি সজীব সরকার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (মাইক) প্রতীক নিয়ে এবং শিল্পপতি কাজী আরজু (তালা) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদিকে এমএম সোয়েব এবং তুহীন খান তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।
নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৮ জন প্রার্থী। তারা হলেন- বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কানিজ ফাতেমা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (হাঁস) প্রতীক নিয়ে। উপজেলা মহিলা লীগের নেত্রী নুরজাহান সিদ্দিকা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (ফুটবল) প্রতীক। ঘাটাইল পৌরসভার ওয়ার্ড কমিশনার কবির হোসেনের সহধর্মিণী শাহিনা আক্তার শিল্পী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (সেলাইমেশিন) প্রতীক। উপজেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি আবু শোয়েব ডনের সহধর্মিণী মীর আলেয়া পারভীন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (বৈদ্যুতিক পাখা) প্রতীক নিয়ে। তাসলিমা জেসমিন পাপিয়া প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (প্রজাপতি) প্রতীক নিয়ে। মরিয়ম আক্তার লড়ছেন (ফুলদানী) প্রতীক নিয়ে। আফিয়া বেগম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (পদ্মফুল) প্রতীক নিয়ে এবং ফাহিমা তালুকদার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন (কলসি) প্রতীক নিয়ে।
প্রার্থীরা পথসভা আর গণ-সংযোগে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে ঘুরে দিচ্ছেন নানান প্রতিশ্রুতি। কিন্তু কারো কথায় নয়, যোগ্য ও সৎ প্রার্থীকে বেছে নেবেন ভোটাররা। এমনটাই জানান তারা। ফলে ভোট গ্রহণের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই বাড়ছে ভোটের আমেজ। একই সঙ্গে সাধারণ ভোটারদের মাঝে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষন ।
ঘাটাইল উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ১৮ হাজার ৫৪০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছে এক লাখ ৫৮হাজার ৭৬৭ জন এবং মহিলা ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ৫৯ হাজার ৭৭৩ জন।
এ ব্যাপারে ঘাটাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম টিনিউজকে জানান, এই উপজেলায় এরই মধ্যে ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ শেষ হয়েছে। একটি সুন্দর, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেয়ার লক্ষে প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ