Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

ঘাটাইলে মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্চিতের বিচার না পেয়ে সংবাদ সম্মেলন

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে এক বীর মুক্তিযোদ্ধাকে লাঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়টি নিয়ে ঘাটাইল থানায় অভিযোগ করতে গেলে কোন প্রতিকার পাননি ওই মুক্তিযোদ্ধা। এমনকি কোন মামলা না করার জন্য পরামর্শ দেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)। পরে শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু অডিটোরিয়ামে লাঞ্চিত বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনির সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনার বিচার দাবি করেন।
বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি লিখিত বক্তব্য বলেন, আমি শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) একাশি বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে যাই। বাজার থেকে ফেরার পথে মাদারিপাড়া কমলাপুর গ্রামের মৃত ইবাদ আলীর ছেলে হাতেম আলী (৫২) আমার গতিরোধ করে অশালীন ও স্বাধীনতা বিরোধী কথাবার্তা বলেন। এ সময় আমি এর প্রতিবাদ করায় একপর্যায়ে হাতেম আলী ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে মারপিট করে এবং পকেটে থাকা নগদ ১২ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে এই ঘটনায় দিঘলকান্দি ও পাশ্ববর্তী ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধারা দিঘলকান্দি ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে বিষয়টির বিচারের দাবি করেন। পরে চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ঘাটাইল পুলিশকে অবগতি করেন। এ অবস্থায় ঘাটাইল মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের কমান্ডার তোফাজ্জল হোসেনসহ মুক্তিযোদ্ধারা ঘাটাইল থানার ওসি মাকসুদুল আলমের কাছে বারবার যোগাযোগ করলেও এ বিষয়ে কোন আইনগত পদক্ষেপ না নিয়ে বিভিন্নভাবে টালবাহানা শুরু করেন।
মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি আরও বলেন, থানার ওসি সাহেব আমাকে এমপি’র নিকট যোগাযোগ করতে বলেন। এ ঘটনায় ওসি পাশ কাটিয়ে হাতেম আলীকে ক্ষমা করে দিতে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি অনুরোধ করেন। একই সাথে এ ঘটনার কোন প্রকার মামলা মোকদ্দমা না করতে পরামর্শ দেন ওসি মাকসুদুল আলম।
মুক্তিযোদ্ধা বলেন, আমি দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধ করে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে একটি দেশ স্বাধীন করে জাতিকে পতাকা উপহার দিলাম। যেখানে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দিয়েছেন। সেখানে এভাবে একজন স্বাধীনতা বিরোধীদের হাতে মুক্তিযোদ্ধাদের লাঞ্চিত হতে হয়। তাই আমি সাংবাদিকদের মাধ্যমে এর সুষ্ঠু বিচারের দাবি করে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
অভিযোগ বিষয়ে ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকসুদুল আলম মোবাইল ফোনে টিনিউজকে বলেন, মুক্তিযোদ্ধাকে লাঞ্চিতের বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ দিতে বললেও ওই মুক্তিযোদ্ধা কোন অভিযোগ দেয়নি। তবে কোন অভিযোগ ছাড়াই লাঞ্চিতকারীকে গ্রেফতারের অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। এছাড়া থানায় শনিবার (২০ এপ্রিল) এসে মামলা কিংবা অভিযোগ করতে চেয়েছিল তারা। বিষয়টি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।
সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধা হায়দার আলী, হামিদুল হক, মঞ্জুর হোসেন খান, আব্দুর রাজ্জাক, গোলাপ হোসেন খান, দিঘলকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ