কালিহাতীতে রাতের আধাঁরে সড়কের সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ

শেয়ার করুন

মেহেদী হাসান ॥
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে রাতের আধাঁরে সড়কের সরকারি গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে একটি মহলের বিরুদ্ধে। উপজেলার তেজপুর থেকে গান্ধিনা পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার এবং গান্ধিনা থেকে দড়িখরশিলা পর্যন্ত ৬শ’ মিটার রাস্তার দু’পাশের সরকারি গাছ ২ লাখ ১০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। তেজপুর থেকে গান্ধিনা পর্যন্ত রাস্তার গাছ ১ লাখ ৩০ হাজার টাকায় এবং গান্ধিনা থেকে দড়িখরশিলা পর্যন্ত রাস্তার গাছ ৮০ হাজার টাকায় কিনে নিয়েছে মালেক মেম্বার ও ফজলুল হক। তারা গাছ ক্রয় করে গাছগুলি তাদের নিজস্ব স’মিলে স্তুপ করে রেখে দিয়েছে।
এ ব্যাপারে মালেক মেম্বার ও ফজলুল হকের সাথে যোগাযোগ করলে তারা কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা টিনিউজকে জানায়, স্থানীয় আয়নাল মেম্বার রাতের আধাঁরে গাছগুলি কেটে মালেক ও ফজলুল হকের কাছে বিক্রি করে। সরকারি নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে বিনা টেন্ডারে এসব গাছ কেটে বিক্রি করলেও স্থানীয় প্রভাবশালী নেতাদের ভয়ে তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়নি। মুঠোফোনে গাছ কাটার বিষয়ে আয়নাল মেম্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি তার বিরুদ্ধে গাছ কাটার অভিযোগ অস্বীকার করেন।
এ বিষয়ে নাগবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান মিল্টন সিদ্দিকী টিনিউজকে বলেন, সরকারি গাছ কাটার বিষয়টি আমি জানতাম না। খবর নিয়ে জানতে পারি স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের যোগসাজসে এসব গাছ কেটে বিক্রি করেছে বলে শুনেছি।
এ ব্যাপারে কালিহাতী উপজেলা এলজিইডি’র প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান টিনিউজকে বলেন, বিষয়টি তেজপুর থেকে গান্ধিনা পর্যন্ত ও গান্ধিনা থেকে দড়িখরশিলা পর্যন্ত এলজিইডি’র রাস্তার দু’পাশে প্রসস্থকরণ কাজ চলমান। এ সুযোগে স্থানীয় একটি মহল রাতের আধাঁরে রাস্তার দু’পাশের গাছগুলি কেটে বিক্রি করে ফেলেছে। এ কারণে আমরা গাছ কর্তনকারীদের তালিকা করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে পাঠিয়েছি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ