কালিহাতীতে কলেজ ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে এক কলেজ ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। ওই ছাত্রীকে দ্রুত উদ্ধার ও আসামীদের গ্রেপ্তারের প্রচেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। মেয়েটিকে খুঁজে না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা একেবারে ভেঙে পড়েছেন।
অভিযোগ থেকে জানা যায়, কালিহাতীর কুরুয়া গ্রামের ভ্যান চালক সাইম উদ্দিনের মেয়ে সালমা আক্তার (১৬) লুৎফর রহমান মতিন মহিলা কলেজে একাদশ শ্রেনীতে পড়ে। সালমা বাড়ি থেকে নিয়মিত কলেজে লেখাপড়া করে। এ সুযোগে নাজমুল হাসান নামের এক বখাটে মেয়েটিকে রাস্তায় প্রতিনিয়ত কুপ্রস্তাব ও ভয়ভীতি দেখাতো। নাজমুল ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কয়ড়া গ্রামের মিনহাজ উদ্দিনের ছেলে। বিষয়টি সালমার পরিবারের পক্ষ থেকে নাজমুলের অভিভাবকদের জানালে সে আরো ক্ষীপ্ত হয়ে উঠে। গত (২৬ নভেম্বর) সকালে সালমা প্রাইভেট পড়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে কলেজের উদ্দেশ্যে বের হয়। পথে পালিমা নামকস্থানে পৌঁছালে নাজমুল ও তার কয়েকজন সহযোগী জোর করে সালমাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।
কলেজ ছাত্রীর মা ও অভিযোগকারী আসমানী বেগম কান্নাজড়িত কন্ঠে টিনিউজকে বলেন, ৬ দিন যাবত আমার মেয়েটিকে পাচ্ছি না। বখাটে নাজমুল আমার নাবালিকা মেয়েকে অপহরণ করেছে। আমি দ্রুত সালমাকে ফিরে পেতে চাই। সেইসাথে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। আমরা খুব আতংকে আছি।
লুৎফর রহমান মতিন মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ শহীদুল ইসলাম টিনিউজকে বলেন, কলেজ ছাত্রীকে খুঁজে না পাওয়া অত্যন্ত বেদনাদায়ক। আশা করি পুলিশ তাকে দ্রুত উদ্ধার করে আসামীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে। ভূঞাপুরের গোবিন্দাসী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু টিনিউজকে বলেন, নাজমুল ও সালমার ঘটনাটি আমি অবগত। এ বিষয়ে আমার উপস্থিতিতে গ্রাম্য সালিশ হয়েছে।
এ বিষয়ে কালিহাতী থানার (ওসি) হাসান আল মামুন টিনিউজকে বলেন, অপহৃতা কলেজ ছাত্রী সালমাকে দ্রুত উদ্ধার ও অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ