এলাসিন ভাসানী কলেজে এইচএসসি’র ফরমপূরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের এলাসিন মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী ডিগ্রি কলেজে চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।
ঢাকা বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী, গত (১২ ডিসেম্বর) থেকে আগামী (২২ ডিসেম্বর) পর্যন্ত ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার ফরম বিলম্ব ফি ছাড়া পূরণ করা যাবে। ১০০ টাকা বিলম্ব ফি সহ আগামী (২৪ থেকে ২৯ ডিসেম্বর) পর্যন্ত এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ করা যাবে। উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী এবার কেন্দ্র ফি সহ বিজ্ঞান শাখায় (৪র্থ বিষয় সহ) দুই হাজার ৪৫০(১৬৯৫+৭৫৫) টাকা এবং মানবিক শাখা ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখা (৪র্থ বিষয় সহ) এক হাজার ৮৯০(১৪৯৫+৩৯৫) টাকা নির্ধারণ করে। এর বাইরে ফরম পূরণের ক্ষেত্রে বাড়তি কোন টাকা না নেয়ার জন্য কঠোর হুশিয়ারি দেয়া হয়েছে। কিন্তু এলাসিন মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী ডিগ্রি কলেজে এইচএসসি পরীক্ষার ফি বিজ্ঞান শাখায় দুই হাজার ৮০০ থেকে ৯ হাজার ৫০০টাকা, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় দুই হাজার ৪০০ থেকে ৯ হাজার ২০০টাকা পর্যন্ত আদায় করার অভিযোগ উঠেছে।
জানা গেছে, এলাসিন মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী ডিগ্রি কলেজে (কলেজ কোড-১১৪১০৬) চলতি বছর এইচএসসি পরীক্ষায় নিয়মিত ৪২৫জন ও অনিয়মিত ৫৭৪জন সহ মোট ৯৯৯জন শিক্ষার্থী পরীক্ষার্থী রয়েছে। নিয়মিতদের মধ্যে ১২৫জন বিজ্ঞান শাখা, ১০৯জন মানবিক শাখা ও ৯২জন ব্যবসায় শিক্ষা শাখার পরীক্ষার্থী।
কলেজের বিজ্ঞান শাখার পরীক্ষার্থী সুবল চন্দ্র মন্ডলের(রোল নং-৭৯) কাছ থেকে আদায় করা হয়েছে ৯ হাজার ২০০ টাকা, একই শাখার ফরহাদ হোসেনের (রোল নং-৪১২) কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা আদায় করা হয়েছে। ব্যবসায় শিক্ষা শাখার বিকাশ চন্দ্র দাসের(রোল নং-১৭০) কাছ থেকে আদায় করা হয়েছে ৮ হাজার ৪৮০টাকা। মানবিক শাখার হাফিজুর রহমান শুভ টিনিউজকে জানান, তার কাছে ৯ হাজার ২০০টাকা দাবি করায় তিনি ফরম পূরণ করতে পারছেন না। তার পরিবারের পক্ষে এতো টাকা সংগ্রহ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। অথচ কলেজ কর্তৃপক্ষ আগামী (২২ ডিসেম্বরের) মধ্যে ওই পরিমাণ টাকা না নিয়ে গেলে ফরম পূরণ করতে দেবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে। ব্যবসায় শিক্ষা শাখার জনৈক ছাত্রীর কাছে ৮ হাজার ৮৩০টাকা ফরম পূরণের জন্য দাবি করা হয়েছে। ফলে তিনিও বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) পর্যন্ত ফরম পূরণ করতে পারেননি।
এ বিষয়ে মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী ডিগ্রি কলেজে উপাধ্যক্ষ লোকমান হাসান টিনিউজকে জানান, গভর্নিং বডির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ফরম পূরণের টাকা নেয়া হচ্ছে। বোর্ড নির্ধারিত ফি’র বাইরে কোন প্রকার অতিরিক্ত টাকা নেয়া হচ্ছে না। ৯ হাজার ২০০ টাকা ফরম পূরণের জন্য নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, বকেয়া বেতনসহ ওই পরিমাণ টাকা নেয়া হতে পারে- তা কোনভাবেই ফরম পূরণের জন্য নয়।
এ বিষয়ে কলেজের গভর্নিংবডির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম টিনিউজকে জানান, এ বিষয়ে কেউ তার কাছে কোন লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ