আওয়ামী লীগের এবারের টার্গেট তিন সিটি

শেয়ার করুন

আওয়ামী লীগের এবারের টার্গেট রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশন। খুলনা ও গাজীপুর সিটি জয়ের পর এবার তারা রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেটে জয় পেতে চায়। এজন্য আওয়ামী লীগ ও ১৪দল আগে থেকেই প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছে। এছাড়া নির্বাচনে জয়ের জন্য বেশকিছু কৌশলও গ্রহণ করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। জানা যায়, জাতীয় নির্বাচনের আগে তারা দেশের সব সিটি কর্পোরেশনে জয় নিশ্চিত করে মাঠ পর্যায়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মনোবল আরও বাড়াতে চায়। আগামী ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট তিন সিটির নির্বাচন।
খুলনা ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিপুল ভোটের ব্যবধানে নৌকার বিজয় দলীয় নেতাকর্মীদের আত্মবিশ্বাস আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। এই জয়ে আওয়ামী লীগ ও তার শরিকদের মধ্যে স্বস্তি বিরাজ করছে। নৌকার বিজয়ের ধারা শুরু হয়েছে। আগামীতে রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেটে এ জয় ধরে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ। এজন্য তারা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছে। দলীয় কোন্দল নেই বললেই চলে। এলাকার জনগণকে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। নেতাদের মতে, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগের কাছে কেউ টিকতে পারবে না। নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত। গণভবনে আয়োজিত সর্বশেষ বর্ধিত সভায় দলীয় প্রধান যে বক্তব্য দিয়েছেন তাতেও তৃণমূলের নেতারা উজ্জীবিত হয়েছেন। সভায় আগামী নির্বাচনে সরকারের ১০ বছরের সফলতা সাধারণ ভোটারদের কাছে তুলে ধরতে বলেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, কৃষক, শ্রমিক, বয়স্ক, বিধবা ও যুব সমাজের জন্য কী কী সুবিধা বর্তমান সরকার দিয়েছে সেগুলো প্রচার করলে জনগণ আবার নৌকা মার্কায় ভোট দিতে উৎসাহিত হবে।
নির্বাচন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের একজন প্রেসিডিয়াম সদস্য জানান, খুলনা ও গাজীপুরের মতো তিন সিটিতেও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের ১৪ দল সমর্থন দিয়েছে। ১৪ দলের নেতাকর্মীরা ইতোমধ্যে গণসংযোগ শুরু করে দিয়েছে তাদের পক্ষে। তিনি আরো জানান রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেটেও নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হবে বলে আশা করছি । কারণ বর্তমান সরকার ওই তিন সিটিতে যে উন্নয়ন করেছে তাতে আগামীতে তারা নৌকার প্রার্থীকেই ভোট দেবেন।
আওয়ামী লীগের একজন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, যে কোনো বিজয়ই পরবর্তী বিজয়ের সম্ভাবনা তৈরী করে। আমরা খুলনা ও গাজীপুরে বিজয় অর্জন করেছি। এ বিজয়ের ধারাবাহিকতায় রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেটেও নৌকার জয় হবে- এটা আমরা আশা করতেই পারি। সরকার টানা দুই মেয়াদে দেশ ও জনগণের কল্যাণে যেসব কাজ করেছে তার সুফলই স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলোয় নৌকার প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ব্রেকিং নিউজঃ